BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিজেপি নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনা সারা, ৩-৪ দিনের মধ্যেই রাজনীতিতে ফিরছেন তথাগত রায়!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 23, 2020 8:53 am|    Updated: August 23, 2020 8:53 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যপাল হিসেবে মেয়াদ শেষ হয়েছে। অব্যাহতি মিলেছে মেঘালয়ের রাজভবন থেকে। এবার ফের সক্রিয় রাজনীতি। হ্যাঁ, সাংবিধানিক পদের মেয়াদ ফুরোতেই ফের সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশ করছেন বঙ্গ বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথাগত রায় (Tathagata Roy)। দলে ফের সক্রিয় হওয়ার ব্যপারে কেন্দ্র তথা রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে ইতিমধ্যেই কথা হয়ে গিয়েছে তাঁর। আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যেই বিজেপির রাজ্য দপ্তরে দেখা যেতে পারে তথাগত রায়কে।

শনিবার রাতে শিলং থেকেই টুইট করে তথাগতবাবু জানান, রবিবার বিকেলে তিনি কলকাতায় ফিরছেন। বিজেপিতে (BJP) ফের যোগ দেওয়ার ব্যাপারে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশ, রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) ও সাধারণ সম্পাদক সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ইতিমধ্যেই কথা হয়েছে তাঁর। বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতির দাবি, দলের সবস্তরের নেতাই তাঁকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত এবং আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যেই তিনি ফের গেরুয়া শিবিরে শামিল হবেন। এখানেই শেষ নয়, আরও একটি টুইটে তথাগত অভিযোগ করেছেন, প্রশান্ত কিশোরের দলবল বঙ্গ বিজেপির অন্দরে ভাঙন ধরানোর চেষ্টা করছে। দলের নেতাদের একে অপরের বিরোধী বলে তুলে ধরার চেষ্টা করছে। কিন্তু সেই প্রচেষ্টা সফল হবে না।

[আরও পড়ুন: করোনার চিকিৎসা সরঞ্জাম নিয়ে ধনকড়ের ‘কাটমানি’ খোঁচার জবাব, নাম না করে টুইট স্বরাষ্ট্রদপ্তরের]

দিন কয়েক আগেই তথাগত ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন, রাজভবন থেকে বেরিয়ে ফের রাজনীতিতে আসতে চান। ২০২১ নির্বাচনের আগে ফের রাজ্য রাজনীতিতে ফের সক্রিয় ভূমিকা নিতে চান। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, মেঘালয়ের বিদায়ী রাজ্যপাল ২০০২-০৬ পর্যন্ত বঙ্গ বিজেপির সভাপতি ছিলেন। তারপর প্রায় ৯ বছর বিজেপির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন। বাংলার রাজনীতির নাড়ি-নক্ষত্র ভালমতোই জানা তাঁর। বর্ষীয়ান এই নেতা ফের সক্রিয় হলে, একুশের আগে বঙ্গ বিজেপির শক্তি বাড়বে বলে নেতাদের দাবি। তবে নতুন করে দলে সক্রিয় হলে তাঁর কী ভূমিকা হবে, সেটা এখনও স্পষ্ট নয়। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement