৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ২২ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: সেনা ও পুলিশের উর্দি পরে খাস কলকাতায় এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের ঘটনায় চাঞ্চল্য। বুধবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটেছে নিউ আলিপুর থানা সংলগ্ন সাহাপুর কলোনিতে। অভিযোগ, বাধা পেয়ে গুলি চালায় অভিযুক্তরা। নিউ আলিপুর থানা সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পুলিশের ভূমিকা।

[আরও পড়ুনপারিবারিক অশান্তিতে বিবাহবিচ্ছেদ, দম্পতির সম্পর্ক জোড়া লাগাল ৫ বছরের মেয়ে]

পুলিশ সূত্রে খবর, এক ভ্রমণ সংস্থার মালিক ওই ব্যক্তি ব্যবসার কাজে বাটানগর গিয়েছিলেন। বুধবার দুপুরে সেখান থেকেই ফিরছিলেন তিনি। সেই সময় ব্রেসব্রিজ এলাকায় পুলিশ ও সেনার উর্দিতে ওই ব্যক্তির পথ আটকায় কয়েকজন। অভিযোগ, ওই ব্যবসায়ী ও তাঁর ৪ সহকারীকে অপহরণ করে ২০০ কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবি করে তারা। বিপদের মধ্যেও বুদ্ধি খাটিয়ে অপহরণকারীদের নিজের ফাঁদে ফেলেন ব্যবসায়ী। টাকা লেনদেনের অছিলায় অভিযুক্তদের নিজের অফিসে নিয়ে যান তিনি। অফিসে পৌঁছাতেই সেখানে কর্তব্যরত নিরাপত্তা কর্মীরা বিষয়টি বুঝতে পারেন। অপহৃতদের উদ্ধার করার চেষ্টা করেন ভ্রমণ সংস্থায় কর্তব্যরত নিরাপত্তা কর্মীরা। সেই সময় আচমকা গুলি চালায় অপহরণকারীরা।

পুলিশ সূত্রে খবর, অপহরণকারীদের গুলি এক জনের পা ছুঁয়ে বেরিয়ে যায়। তবে কেউ গুরুতর আহত হননি। গুলির শব্দে স্থানীয়রা এলাকায় জড়ো হতেই পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। কিন্তু অপহরণকারীদের মধ্যে একজনকে ধরে ফেলে স্থানীয়রা। খবর পেয়েই নিউ আলিপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লেবু সঞ্জয় নামে এক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তারাতলায় তাদের ডেরায় হানা দেয় পুলিশ। সেখান থেকে আরও ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দিনেদুপুরে থানা সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। কেনই বা পুলিশের উর্দি ও পুলিশের স্টিকার লাগানো গাড়িতে অপারেশনে গেলেন অভিযুক্তরা, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে শুধুমাত্র বুদ্ধির জোরেই অপহরণকারীদের হাত থেকে মুক্তি পেলেন ৫ জন।  

[আরও পড়ুন: উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ, বৃহস্পতিবার থেকে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা দক্ষিণবঙ্গে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং