২৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: ‘আমিই বাড়ির বউ। বাড়িতে ঢুকবই।’ এমনই দাবি তুলে ধরনায় বসেছেন এক মহিলা। তাঁর বক্তব্য, তিনিই বাড়ির আসল গিন্নি। কিন্তু তাঁকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না বাড়িতে। এই দাবি তুলেই বাড়ির দোরগোড়ায় বসে দিনরাত ধরনা এক মহিলার। বাড়ির কর্তার দাবি, ওই মহিলা আদৌ তাঁর স্ত্রী নন। তাঁর সম্পত্তি হাতানোর জন্যই বাড়ির সামনে বসে রয়েছেন তিনি।

[ আরও পড়ুন: শব্দদানবের দৌরাত্ম্য রুখতে আধিকারিকদের সজাগ থাকার নির্দেশ পুলিশ কমিশনারের ]

দক্ষিণ কলকাতার লেক এলাকার মহারাজা টেগোর রোডে ঘটেছে এই ঘটনা। বাড়ির কর্তা ও ওই মহিলার দাবি ঘিরে বিভ্রান্ত পুলিশ আধিকারিকরাও। পুলিশ জানিয়েছে, লেক এলাকার বাড়িতে হঠাৎই এসে হাজির হন সুতপা নামে ওই মহিলা। রবিবার বিকেলে তিনি বাড়ির ভিতর ঢোকার চেষ্টা করেন। বাড়ির কর্তা বাধা দেন। তিনি প্রতিবেশীদের কাছে দাবি করেন যে, তিনি ওই ব্যক্তির স্ত্রী। ওই ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়েছে। একটি ম্যারেজ সার্টিফিকেটও তিনি প্রতিবেশীদের দেখান। বাড়ির কর্তা অরিন্দম ওই দাবি অস্বীকার করেন। তিনি প্রতিবেশীদের কাছে বলেন, ওই মহিলার সঙ্গে তাঁর কোনওদিনও বিয়ে হয়নি। ওই সার্টিফিকেটও আসল নয়। বিষয়টি নিয়ে পরিবারটির সঙ্গে ওই মহিলার গোলমাল হয়। এর পরই মহিলা বাড়ির সিঁড়িতে ধরনায় বসে পড়েন।

[ আরও পড়ুন: দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতি সংকটজনক, মত নোবেলজয়ী অভিজিতের ]

পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু মহিলা পুলিশকেও জানিয়ে দেন যে, তাঁকে যতক্ষণ বাড়ির কর্তা স্ত্রী বলে মেনে নিয়ে ঘরে না তুলছেন, ততক্ষণ তিনি এভাবে বসেই থাকবেন। রবিবার সারারাত তিনি এভাবেই বসে ছিলেন। সোমবার সকাল থেকেও প্রতিবেশী ও পুলিশ তাঁকে একইভাবে বসে থাকতে দেখে। বাড়ির কর্তার মা আদালতে ওই মহিলার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান। ওই বাড়িটির উপর নজর রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং