BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘দেশের সবচেয়ে বড় মহামারী বিজেপি’, গেরুয়া শিবিরকে কড়া আক্রমণ মমতার

Published by: Sayani Sen |    Posted: October 3, 2020 5:10 pm|    Updated: October 3, 2020 5:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাথরাস গণধর্ষণ ও খুনের (Hathras Gang Rape) ঘটনার প্রতিবাদে কলকাতার রাজপথে মিছিল করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর সভামঞ্চ থেকে বিজেপিকে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করেন তিনি। গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িক বিভেদ তৈরির অভিযোগ করেন। কৃষি আইন নিয়েও কেন্দ্রীয় সরকারকে খোঁচা দেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান।

ধর্মীয় ভেদাভেদের প্রসঙ্গ তুলে বিজেপিকে (BJP) খোঁচা দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বলেন, “মুসলমানদের জন্য কিছু করলে বলে মুসলিম তোয়াজ। হিন্দুরা বিপদে পড়লে বলো না তো মমতা তোমার পদবী কী? তোমরা কে সকলের পদবী নিয়ে কথা বলবে? আমার একটাই ধর্ম। আমার ধর্ম মানবতা। নমঃশূদ্রদের উপর সবচেয়ে বেশি আক্রমণ চলছে। সংখ্যালঘু ভাইবোনেরা ভয় কথা বলতে পারে না।” দুর্গাপুজো নিয়েও গেরুয়া শিবিরকে খোঁচা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “কয়েকদিন আগে বলেছিল মমতা দিদি দুর্গাপুজো, সরস্বতী পুজো, লক্ষ্মীপুজো কেন করতে দেন না? মমতাদি কখনও মন্দির, মসজিদ, গির্জা নিয়ে রাজনীতি করে না। সমস্ত মানুষের পাশে থাকা আমার সাংবিধানিক দায়িত্ব।”

[আরও পড়ুন: ‘বিজেপি নেতারা চূড়ান্ত কাপুরুষ’, হাথরাস কাণ্ড নিয়ে ফের তোপ দাগলেন সাংসদ নুসরত]

কেন্দ্রের কৃষি আইন (Farm Law 2020) নিয়েও খোঁচা দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “জোর করে কৃষি আইন পাশ করিয়েছে কেন্দ্র। সব কৃষকদের লুটে নেবে। আলু, ডালু, চাল, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নয়। দুর্ভিক্ষ আসছে।” বিজেপি জমানায় দেশে বিশৃঙ্খলার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলেও অভিযোগ রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের। তিনি বলেন, “কোনও গণতন্ত্র নেই দেশে। এজেন্সিরাজ চলছে। কারও জীবনের সুরক্ষা নেই। নিরাপত্তা নেই। ঘরে বসে ভাষণ দিচ্ছে। ভুয়ো খবর এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় শুধু প্রচার হচ্ছে। দেশের সবচেয়ে বড় মহামারী বিজেপি। ভোট আসলেই বাবুদের টনক নড়ে। আর তখন বেরিয়ে পড়ে। ভোটের আগে এজেন্সিকেও টাকা পাঠান আপনারা। নির্বাচন আসলেই পাকিস্তান, পুলওয়ামা, যুদ্ধর কথা আসে। তারপর রেল, বিএসএনএল বেচে দেন। সব বিক্রি করে দেন। ৫-৬ বছর অনেক সহ্য করেছি।” জিএসটির (GST) প্রসঙ্গ তুলে আরও একবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজ্যকে বঞ্চনার অভিযোগেও সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: ‘টেক্কা দেওয়ার রাজনীতি’, কেন্দ্রীয় নির্দেশের আগেই রাজ্যে সিনেমা হল খোলায় মমতাকে তোপ বাবুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement