BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর ইস্যুতে মমতাকে আক্রমণ, গণশক্তিই হাতিয়ার বঙ্গ বিজেপির!

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 8, 2020 3:03 pm|    Updated: May 8, 2020 3:03 pm

An Images

ফাইল ফটো

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: পরিযায়ী শ্রমিকদের রাজ্যে ফেরানোর বিষয়ে পক্ষপাতিত্ব করছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। এই অভিযোগ জানাতে গিয়ে এবার সিপিএমের মুখপত্র গণশক্তির একটি খবরকে হাতিয়ার করে বিতর্কে জড়াল বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ব। মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করতে গিয়ে গণশক্তির একটি খবরকে নিজেদের অফিশিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে টুইট করেছে তারা। আর তারপরই কটাক্ষের ঝড় বয়ে যাচ্ছে স্যোশাল মিডিয়াতে। নেটিজেনরা কটাক্ষ করে বলছেন, ‘ভোটবাক্স ভরানোর জন্য যেমন এই রাজ্যের বিজেপি নেতারা বাম ভোটারদের মুখাপেক্ষী থাকেন। তেমনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর সরকারকে আক্রমণ করতে গিয়ে সিপিএমের মুখপত্র গণশক্তির উপরই ভরসা করতে হচ্ছে তাঁদের।’

করোনা ভাইরাসের জেরে লকডাউন (Lockdown) চলছে দেশজুড়ে। এর ফলে সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়ছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। দীর্ঘদিন কাজ বন্ধ থাকায় হাতে নগদ টাকার জোগান যেমন কমেছে, তেমনি দুবেলা দুমুঠো খাবারও জুটছে না বলে অভিযোগ তাঁদের। এই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন রাজ্যগুলি নিজের নিজের বাসিন্দাদের ফিরিয়ে আনার জন্য সবরকম চেষ্টা করছে। পিছিয়ে নেই পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সরকারও। রাজস্থানের কোটা থেকে বাস করে প্রায় আড়াই হাজার পড়ুয়াকে কয়েকদিন আগেই রাজ্যে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। আজমের থেকে তীর্থযাত্রীদে ফিরিয়ে আনার জন্য রেলের কাছে অনুরোধ করে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের তরফে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই বিতর্ক শুরু হয়। প্রশ্ন ওঠে অন্যান্য রাজ্যেও যখন পশ্চিমবঙ্গ থেকে যাওয়া পরিযায়ী শ্রমিক ও তীর্থযাত্রী আটকে রয়েছেন। তখন শুধু আজমের থেকেই কেন তীর্থযাত্রীদের ফিরিয়ে আনার বিষয়ে এতটা উদগ্রীব হয়ে উঠেছে রাজ্য সরকার। এর মাধ্যমে সংখ্যালঘুদের তোষণ করার চেষ্টা হচ্ছে বলেও কটাক্ষ করেন অনেকে।

[আরও পড়ুন: পরপর সব রিপোর্ট নেগেটিভ! কলকাতায় ভুয়ো করোনা পরীক্ষা কেন্দ্রের পর্দাফাঁস ]

সাত মে সিপিএমের মুখপত্র গণশক্তিতে মহারাষ্ট্রে আটকে পড়া শ্রমিকদের দুর্দশা বর্ণনা করে একটি খবর প্রকাশিত হয়। তাতে অবশ্য সংখ্যালঘু তোষণের বিষয়ে কোনও অভিযোগই করা হয়নি। কিন্তু, সেই খবরটিকেই টুইট করে সংখ্যালঘু তোষণের অভিযোগ তুলতে গিয়ে বিতর্কে জড়াল বঙ্গ বিজেপি। গণশক্তির প্রথম পাতাটি পোস্ট করে ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, নিজের রাজ্যের মানুষের দায়ই নিচ্ছে না মমতার সরকার। মহারাষ্ট্র থেকে শ্রমিকদের ট্রেনে ফিরিয়ে আনার প্রস্তাব বাতিল করে তাঁদের দুর্দশার মধ্যে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু, আজমের থেকে তীর্থযাত্রীদের নিয়ে আসা ট্রেনকে ছাড়পত্র দিয়েছে। এটা নিয়ে জল্পনা করার কোনও প্রয়োজন নেই।

বিজেপির এই টুইটের পরেই কটাক্ষের ঝড় বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। এক টুইটারাট্টি লেখেন, ‘ভগৎ সিং, নেতাজি, আজাদ ও বিবেকানন্দকে নিজেদের লোক বলে আগে দাবি করেছিল। এখন সিপিএমের মুখপত্র গণশক্তির খবরও ব্যবহার করছে বিজেপি। আব কি বার, কপি পেস্ট সরকার।’

[আরও পড়ুন: ৪০ দিন ধরে নিঃশব্দে দুস্থদের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন মুসলিম তরুণ, গর্বিত তপসিয়াবাসী]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement