BREAKING NEWS

১২ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৯ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বালি মাফিয়াদের রুখতে বড় পদক্ষেপ মুখ্যমন্ত্রীর, তৈরি হচ্ছে নতুন Sand Mining Policy

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 22, 2021 4:01 pm|    Updated: July 22, 2021 5:02 pm

West Bengal CM Mamata Banerjee introduces new sand mining policy | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বালি, কয়লা নিয়ে বেআইনি ব্যবসা রুখতে বড় পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের। প্রাকৃতিক সম্পদ বাঁচাতে স্যান্ড মাইনিং পলিসি (Sand Mining Policy) চালুর ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। খননের দায়িত্ব দেওয়া হল মিনারেল মাইনিং কমিটির (Mining Committee) হাতে। আগে এই খননের দায়িত্ব ছিল সংশ্লিষ্ট জেলাশাসকের হাতে। এবার তাঁদের সেই দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হল। খনিজ সম্পদ নিলামের বাড়তি টাকা যাতে বেআইনিভাবে কেউ লুট করতে না পারেন, তার জন্য এই পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন তিনি। এবার থেকে কোথাও কোনও বালি কিংবা কয়লা লুটের খবর পেলে অনলাইনের মাধ্যমে সরকারের কাছে অভিযোগ জানাতে পারবেন যে কেউ। স্থানীয় প্রাকৃতিক সম্পদ লুট একেবারেই বরদাস্ত নয়, স্পষ্ট হুঁশিয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর। বৃহস্পতিবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল নবান্নে। সেখানে এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনার পরই স্যান্ড মাইনিং পলিসি চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

বিধানসভা ভোটের আগে থেকে রাজ্যে কয়লা পাচার কাণ্ডের তদন্তে নেমে ইডি, সিবিআই (CBI) সক্রিয়ভাবে কাজ করছে। এই কেলেঙ্কারিতে বিভিন্ন ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক নেতাদের যোগ কতটা, তা খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা। এমনকী এ নিয়ে তৃণমূলের (TMC) সর্বভারতীয় সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে গিয়ে তাঁর স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছে সিবিআই। বিষয়টি সেসময় রাজনৈতিক মহলে বেশ সাড়া ফেলেছিল।  কয়লাকাণ্ডে এখনও মূল চক্রীদের নাগালে পায়নি কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। একুশের ভোটে কয়লা কেলেঙ্কারিকে ইস্যু হতে লাগাতার তৃণমূলের বিরুদ্ধে প্রচার চালিয়েছিল বিজেপি (BJP)।  যদিও তাতে সুবিধা হয়নি। নির্বাচনে গোহারা হেরেছে গেরুয়া শিবির।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে ফের চালু হচ্ছে ‘দুয়ারে সরকার’ শিবির, ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ সূচনার দিন ঘোষণা মমতার]

তবে ইতিমধ্যে দলকে এভাবে কয়লার ‘কালো’য় বিদ্ধ হতে দেখে তৃতীয়বার সরকার গঠনের পর বিষয়টি নিয়ে কড়া পদক্ষেপ নিলেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেই।  বৃহস্পতিবার নবান্ন থেকে সাংবাদিক বৈঠকে তাঁর স্পষ্ট বার্তা, স্থানীয় প্রাকৃতিক সম্পদ লুট করা যাবে না। দেখা যাচ্ছে, খনির নিলাম থেকে কোনও কোনও অসাধু ব্যবসায়ী বাড়তি মুনাফা করছে। এটা বরদাস্ত হবে না। ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের মত, অভিষেকের মতো কয়েকজন নেতার নাম কয়লা কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়ায় এবার সাবধানী মমতা।  বিরোধীদের এই বিশেষ অস্ত্র ভোঁতা করতেই স্যান্ড মাইনিং পলিসি চালু করলেন তিনি। বুঝিয়ে দিলেন, কোনও বেআইনি বিষয়ে নিষ্ক্রিয় হয়ে থাকবে না তাঁর সরকার।

[আরও পড়ুন: ছাত্রদের বন্ধু হতে হবে শিক্ষককে, কচিকাঁচাদের মানসিক স্বাস্থ্যের বিকাশে জোট বাঁধল স্বাস্থ্য শিক্ষা দপ্তর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement