BREAKING NEWS

২৯ আশ্বিন  ১৪২৮  শনিবার ১৬ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

টাকা পাঠানো শুরু রাজ্যের, পুজোর আগেই মহিলাদের অ্যাকাউন্টে ঢুকবে ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র অর্থ

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 27, 2021 9:17 pm|    Updated: September 27, 2021 9:18 pm

West Bengal govt releases 'Lakshmir Bhandar' fund ahead of Durga Puja | Sangbad Pratidin

মলয় কুণ্ডু: পুজোর আগেই রাজ্যের মহিলাদের জন্য সুখবর। ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’ (Laxmi Bhandar) যাঁরা আবেদন করেছিলেন, তাঁদের জন্য প্রথম পর্যায়ে প্রায় আড়াই কোটি টাকা বরাদ্দ করল রাজ্য সরকার। সোমবার নারী ও শিশুকল্যাণ দপ্তরের পক্ষ থেকে রাজ্যের জেলাশাসকদের সেই বরাদ্দ পাঠিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নবান্ন সূত্রে খবর, প্রথম পর্যায়ে ২ কোটি ৪৮ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) আগেই জানিয়েছিলেন, লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে যাঁরা আবেদন করেছেন, তাঁদের একটি অংশের আবেদনপত্র খতিয়ে দেখার কাজ শেষ হয়েছে। তাঁদের আবেদনপত্র খতিয়ে দেখার পর প্রথম পর্যায়ে এই টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে বলে নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে। এর পরের পর্যায়ে দফায় দফায় আবেদনপত্র খতিয়ে দেখে টাকা বরাদ্দ করবে রাজ্য সরকার। গত ১৬ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছিল দুয়ারে সরকার প্রকল্প। শেষ হয় ১৭ সেপ্টেম্বর। সব মিলিয়ে শিবিরে এসেছিলেন ৩ কোটি ৫৮ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭৯১ জন। লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে আবেদন জমা পড়েছে ১ কোটি ৭৯ লক্ষ ২৬ হাজার ৩৬৮টি।

[আরও পড়ুন: By-Election: ভোট প্রচারে বাধার জের, ভবানীপুরের উপনির্বাচন স্থগিতের দাবি Dilip Ghosh-এর]

এই প্রকল্পে এসসি, এসটি এবং ওবিসি’রা পাবেন এক হাজার টাকা করে এবং সাধারণ মহিলাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে যাবে পাঁচশো টাকা। পুজোর আগেই যাতে রাজ্যের মহিলারা এই আর্থিক সাহায্য পেয়ে যান, তার জন্য প্রশাসনিক আধিকারিকদের আগেই নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। আবেদনপত্র জমা পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা খতিয়ে দেখার কাজ শুরু করেছিলেন সরকারি কর্মীরা। জমা পড়া আবেদনপত্র খতিয়ে দেখে যাঁরা যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছে, তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আর্থিক সাহায্য পৌঁছে যাবে। বাকিরাও একইভাবে দফায় দফায় টাকা পাবেন।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথম পর্যায়ে যে ২ কোটি ৪৮ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা বরাদ্দ হয়েছে, তার মধ্যে সব থেকে বেশি অর্থ যাচ্ছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায়। এই জেলার জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে প্রায় ২৯ লক্ষ ৮১ হাজার টাকা। এর পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। সেখানে বরাদ্দের পরিমাণ ২৫ লক্ষ ৯৬ হাজার টাকা। পূর্ব মেদিনীপুরে ১৯ লক্ষ ৮৭ হাজার, মুর্শিদাবাদে ১৭ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা। এছাড়াও প্রতিটি জেলার জন্যই অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে। নারী ও শিশু কল্যাণ দপ্তরের জারি করা নির্দেশে এই অর্থ ব্যয়ের জন্য নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ইউটিলাইজেশন সার্টিফিকেট বা ইউসি দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: করোনা আবহে বাড়ি গিয়ে প্রতিমা তৈরিতে নারাজ মৃৎশিল্পীরা, চিন্তায় বনেদি পরিবারগুলি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement