০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘২৩ থেকে ৪৬-ও হতে পারে’, রাজ্যে জেলা বাড়ানোর ইঙ্গিত মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 12, 2022 4:30 pm|    Updated: May 12, 2022 5:38 pm

West Bengal likely to get more districts, CM Mamata Banerjee hints | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যে আগামী দিনে আরও নতুন নতুন জেলা হবে। এমনকী বর্তমানে জেলা সংখ্যা তা দ্বিগুণও হতে পারে। বৃহস্পতিবার সংস্কার হওয়া টাউন হলে (Town Hall) আমলাদের নিয়ে সম্মেলনে এমনই ইঙ্গিত দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। তাঁর বক্তব্য, এর জন্য আরও বেশি অফিসার দরকার। কেন্দ্রের কাছে বারবার আইএএস (IAS) অফিসারদের বঙ্গে কাজের সুযোগ করে দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। কিন্তু তেমন সাড়া মেলেনি বলেও অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। আর সেই কারণেই জেলা ভাগাভাগির কাজ সম্পন্ন হচ্ছে না।

বৃহস্পতিবার সংস্কারের পর টাউন হলের সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেইসঙ্গে আমলাদের বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দেন। রাজ্যের বেশ কয়েকজন আমলার ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি। পূর্ব মেদিনীপুর, বীরভূম ও পুরুলিয়ার জেলাশাসকদের প্রশংসা করে বলেন, ”এখন রাজ্যে ২৩টি জেলা, এরপর ৪৬টিও হতে পারে। তার জন্য আরও অফিসার দরকার। পরিকাঠামো দরকার। পরিকাঠামো আমাদের আছে, কিন্তু পর্যাপ্ত অফিসার নেই।”

[আরও পড়ুন: বারাণসীর জ্ঞানবাপী মসজিদে জারি থাকবে ভিডিও সার্ভে, জানিয়ে দিল আদালত]

এর আগে এপ্রিল মাসে নবান্নে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়। বাংলায় ৪২টি লোকসভা কেন্দ্র রয়েছে। অথচ জেলার সংখ্যা মোটে ২৩। বাংলার চেয়ে আয়তনে ছোট অনেক রাজ্যেই জেলার সংখ্যা বেশি।  প্রশাসনিক কাজ সুপরিচালনার জন্য এ রাজ্যেও জেলার সংখ্যা বাড়াতে চাইছে নবান্ন। বড় জেলাগুলিকে ভাঙার পরিকল্পনা রয়েছে। আর জেলার সংখ্যা বাড়িয়ে প্রশাসনিক কাজ সুপরিচালনার জন্য অনেক বেশি আমলার প্রয়োজন। দরকার জেলাশাসক, পুলিশ সুপারের। সেই তুলনায় রাজ্যে আমলার সংখ্যা কম। পর্যাপ্ত সংখ্যক আমলা চেয়ে দিল্লির UPSC-কে চিঠি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে।  এ বিষয়ে মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: ‘আমলারাই সরকারের আসল মুখ’, WBCS অফিসারদের জন্য একাধিক ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]

বৃহস্পতিবার WBCS অফিসারদের বার্ষিক সম্মেলনে ফের জেলাভাগের ইঙ্গিতই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। স্পষ্টই জানালেন, কেন্দ্রের অসহযোগিতায় বাংলায় পর্যাপ্ত IAS, IPS না থাকায় সেই কাজ এগনো সম্ভব হচ্ছে না। তবে মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্তকে স্বাগতই জানাচ্ছে ওয়াকিবহাল মহল। একেকটি জেলার আয়তন এত বেশি যে গোটা জেলায় নাগরিক পরিষেবা অনেক সময়েই যথাযথ হয় না, প্রশাসনিক কাজকর্মেও সমস্যা হয়। তাই সেই জেলা ভেঙে একাধিক জেলা তৈরি হলে কাজ অনেক ভাল হবে, নাগরিকদেরও সুবিধা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে