২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিধানসভার বিএ কমিটি থেকে বাদ পার্থ, সর্বদল বৈঠকে বিজেপির গরহাজিরা নিয়ে তোপ স্পিকারের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 16, 2022 9:32 pm|    Updated: November 16, 2022 9:32 pm

Winter session of West Bengal assembly to start on Friday | Sangbad Pratidin

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে রাজ‌্য বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন। তার আগে বুধবার ছিল সর্বদল বৈঠক ও বিএ কমিটির বৈঠক। নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে বর্তমানে জেলে রয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ‌্যায় (Partha Chatterjee)। এর আগের অধিবেশনের সময় বিজনেস অ্যাডভাইজারি কমিটির বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছিল পার্থকে। এবার অবশ‌্য বিএ কমিটিতে রাখা হয়নি প্রাক্তন পরিষদীয় মন্ত্রীকে। এদিন স্পিকার জানিয়ে দেন,‘‘পার্থবাবু বিএ কমিটিতে আর নেই। উনি জেলে আছেন। যতদিন পর্যন্ত জেল থেকে ছাড়া না পাবেন বিধানসভায় আসার প্রশ্ন নেই।’’

রাষ্ট্রপতি সম্পর্কে রাজ্যের মন্ত্রী অখিল গিরির মন্তব‌্য নিয়ে বিধানসভার অধিবেশনে হইচই বাঁধানোর পরিকল্পনা নিয়েছে বিজেপি। আবার বীরবাহা হাঁসদাকে কুরুচিকর মন্তব্যের জন‌্য শুভেন্দুর বিরুদ্ধেও বিধানসভায় পালটা সরব হতে পারে শাসকপক্ষ। এ প্রসঙ্গে স্পিকারের দাবি, ‘‘এসব নিয়ে আলোচনার দাবি কেউ করেনি। করলে পর্যালোচনা করব। বিষয়টি নিয়ে আদালতে মামলা হয়েছে।’’ এরপরই বিরোধীদের একহাত নিয়ে স্পিকার বলেন, সর্বদল ও বিএ কমিটির (BA Committee) বৈঠকের মতো গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হল। বিরোধী দলনেতা এলেন না। এসব আলোচনায় অংশ নিতে বাধা কোথায় আমি বুঝি না।

[আরও পড়ুন: অভিষেকের শিশুপুত্রকে নিয়ে ‘কুৎসা’, শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে বেলেঘাটা থানায় অভিযোগ দায়ের]

উল্লেখ‌্য, এদিন বিজেপির কোনও প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না বিধানসভায়। যতদিন না পর্যন্ত পিএসির (PAC) চেয়ারম‌্যান নিয়ে ফয়সালা না হয়, ততদিন বিজেপি সর্বদল বৈঠক ও বি কমিটির বৈঠক বয়কট করে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একইসঙ্গে বিজেপির অভিযোগ, বিধানসভায় বিরোধীদের আলোচনার বা বলার সুযোগ দেওয়া হয় না। এই দু’টি অভিযোগ কার্যত উড়িয়ে দিয়ে বিমানবাবু বলেন, মুকুল রায় নিয়ে বড় রায় দিয়ে দিয়েছি। সেটা নিয়ে আর কিছু বলার নেই। আর বিধানসভায় প্রশ্নোত্তরপর্বে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয় বিরোধীদের। লোকসভাতে তো বিরোধী দলের কাউকে কোনও কমিটির চেয়ারম‌্যান পদ দেওয়া হয়নি। আমরা তো এখানে ৯টি কমিটির চেয়ারম‌্যান পদ দিতে চেয়েছিলাম। বিরোধীরা নেয়নি সেটা আদালা বিষয়।

[আরও পড়ুন: মাঝ রাস্তায় মৃত্যুর হাতছানি! এবার ত্রাতার ভূমিকায় কলকাতা ট্র্যাফিক পুলিশ]

৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বিধানসভার অধিবেশন চলবে। এখনও পর্যন্ত খবর, চারটি বিল আসতে চলেছে। পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের ওয়েস্ট বেঙ্গল মিউনিসিপ‌্যাল কর্পোরেশন সংশোধনী বিল দু’টি। ওয়েস্ট বেঙ্গল ট‌্যাক্সেসন ল’স সংশোধনী বিল ও প্রাইভেট ফিসারিশ সুরক্ষা বিল। ২৫ নভেম্বর বিধানসভার নতুন ভবনের উদ্বোধন করবেন মুখ‌্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এদিন সর্বদল বৈঠকে স্পিকার ছাড়াও ছিলেন মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ‌্যায়, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, মলয় ঘটক, পার্থ ভৌমিক, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, বিধায়ক নির্মল ঘোষ, তাপস রায়, অশোক দেব প্রমুখ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে