৪ আশ্বিন  ১৪২৬  রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  শাড়ি, গয়না বানান৷ গ্রামীণ কুটিরশিল্পের বিকাশ ঘটিয়ে স্বনির্ভর হোন৷ শুক্রবার নবান্ন সভাঘরে ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প দপ্তরের অনুষ্ঠান উদ্বোধন করে এমনই পরামর্শ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্পে আরও মহিলাদের যোগদানের কথা বলেন তিনি৷ দেশজুড়ে আর্থিক মন্দার কথা উল্লেখ করে তাঁর আরও বক্তব্য, যেখানে কারখানাগুলি একে একে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, সেখানে গ্রামীণ শিল্পে এই মুহূর্তে কর্মসংস্থান বৃদ্ধি প্রয়োজন৷

[আরও পড়ুন: আইনজীবীর পরামর্শে সিদ্ধান্ত বদল, রোজভ্যালি মামলায় সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরা রাজীব কুমারের]

শুক্রবার নবান্ন সভাঘরে রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটিরশিল্প দপ্তরের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়৷ দুদিনের এই অনুষ্ঠানে দপ্তরের বিভিন্ন কাজ নিয়ে পর্যালোচনার পাশাপাশি কীভাবে আরও উন্নতি করা যায়, তা নিয়েও আলোচনা হওয়ার কথা৷ তার আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী এই সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন, যার উপর ভিত্তি করে আগামী সময়ে আলোচনা এগোতে পারে৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আগেকার দিনে মহিলারা ভারী শাড়ি পরতেন৷ কিন্তু এখন সবাই হালকা পোশাক পরতে পছন্দ করেন৷ শাড়ির ভার যত কমবে, ততই তা জনপ্রিয়৷ যেমন হ্যান্ডলুম৷ তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের সুতোয় আজকাল শাড়ি বোনা হচ্ছে৷ সবাই এধরনের শাড়ি পরতে পারেন৷ তাই এসব দিকে আরও বেশি কাজ যাতে হয়, নজর রাখতে হবে৷ এই কাজে আরও জোর দিতে হবে৷’

কাজের পদ্ধতি নিয়েও এদিন বেশ কয়েকটি নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর সাফ কথা, কাজ করতে গেলেই সমস্যা হবে৷ দ্রুত তার সমাধানও করতে হবে৷ ফেলে যেন না রাখা হয়৷ এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, সিঙ্গল উইন্ডো সিস্টেমে কাজ করা সুবিধাজনক৷ তাই দ্রুত সেই পদ্ধতিতেই কাজ শুরু হোক, এমনই পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রীর৷

[আরও পড়ুন: সারদা কাণ্ডে এবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে তলব সিবিআইয়ের, সিজিও কমপ্লেক্সে গেলেন মন্ত্রী]

কলকারখানায় শ্রমিক আন্দোলন নিয়েও এদিন কড়া বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর কথায়, ‘কথায় কথায় ঝান্ডা হাতে কারখানার সামনে বসে বিক্ষোভ করার পক্ষপাতী আমি নই৷ কারখানাও চলবে, সেইসঙ্গে শ্রমিক সমস্যা থাকলে তারও সমাধান করে দেওয়া হবে৷ কিন্তু সবসময় কর্মবিরতি ডেকে বিক্ষোভ বরদাস্ত নয়৷’ এরপর নাম না করে এরপর বিজেপিকেও বিঁধেছেন তিনি৷ বলেছেন, ‘অশান্তি বা ধর্মের ভিত্তিতে ভাগাভাগির প্রতিযোগিতায় নয়৷ আসুন, কাজের প্রতিযোগিতায় নামুন৷’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং