BREAKING NEWS

১৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  সোমবার ৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে ভাইরাল ডালগোনা কফি, বাড়িতেই বানিয়ে করুন বাজিমাত

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 7, 2020 5:05 pm|    Updated: April 7, 2020 5:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাতাসে গরমের দাপট। তার ওপর লকডাউনে গৃহবন্দি সকলেই। বিকেলের ফুরফুরে হাওয়ায় মনকে তাজা করে নিতে বাইরে যাওয়াও মানা। তাতে কি? কুছ পরোয়া নেহি। কফি শপে বন্ধুদের সঙ্গে যেতে না পারলেও বাড়িতেই বানিয়ে নিন এখনকার ট্রেন্ডি ‘ডালগোনা’ কফি (Dalgona Coffee)। আর চমক লাগিয়ে দিন সকলকে।

dalgona-coffee-2

লকডাউনের জেরে গৃহবন্দি হয়ে প্রত্যেকেই মেতেছেন সৃজনশীলতার কাজে। কেউ রান্না করছেন, কেউ গান, কেউ বা নানা হস্তশিল্পের কাজে ব্যস্ত রেখেছেন নিজেদের। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় সেলেবদের বাহারি রান্না দেখে যারা হাপিত্যেশ না করে আপনিও বানিয়ে ফেলুন ডালগোনা কফি। আর ছবি তুলে সোশ্যাল সাইটে দিয়ে তাক লাগিয়ে দিল পরিজনদের। হাল ফ্যাশনের চ্যালেঞ্জের মাঝে আপনিও এই কফি বানানোর চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে পারেন পরিচিতদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন:মিষ্টিমুখে ভয়কে জয়! লকডাউনের বাজারে হটকেক ‘করোনা’ মিষ্টি]

ডালগোনা কফির নাম শুনে বাহারি মনে হলেও এই কফির জন্ম ভারতেই। ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশেই রয়েছে এই কফির প্রবল চাহিদা। ফেটিয়ে বানানোর জন্যই ‘ফেঁতি হুই’ নামে পরিচিত এই কফি। ডালোগনা কফি বানানোর পর যে সাদা ফেনা দেখা যায় তা আসলে ঘণ দুধের। ক্যাপুচিনো বা ফিল্টার কপির থেকে কোনও অংশে কম নয় এই কফি। তবে ডালগোনা নামটি এসেছে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে। দক্ষিণ কোরিয়ায় ডালগোনা নামের একটি ক্যান্ডি পাওয়া যায়। ডালগোনা কফি বানানোর পর সেই কফির রং ক্যান্ডির মত হওয়ায় কফির নাম দেওয়া হয় ‘ডালগোনা।’

[আরও পড়ুন:লকডাউনে বেশি করে সবজি-মাছ কিনেছেন? ঘরোয়া পদ্ধতিতে এভাবেই রাখুন তরতাজা]

‘ডালগোনা’ কফি বানাতে প্রয়োজন দুধ, চিনি, কফি। গরম জল, কফি, চিনি আর দুধ সমানে যদি মিক্সিতে ব্লেন্ড করা যায় তাহলে ঘন হতে হতে তা ঘন ক্রিমের মতো আস্তরণ পড়বে। যাঁরা কফিখোর তাঁদের দাবি, এই কফি বানানোটাও যেমন দেখার মতো, খেতেও জবরদস্ত। আগে গরম দুধ ফেটিয়ে এই ডালগোনা কফি বানিয়ে খাওয়ার প্রচলন ছিল। এখন ঠান্ডা দুধের মধ্যে দিয়েও বানিয়ে নেওয়া যায়। কফি বানানোর পর তা আকর্ষণীয় করে তুলতে কফি মাগের ওপর ছড়িয়ে দিতে পারেন চকোলেট, কফি গুড়ো বা চকো চিপস। আর তাড়িয়ে তাড়িয়ে উপভোগ করুন দিনের যে কোনও সময়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement