BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

খোঁপার কাঁটা থেকে কানের দুল, যৌন হেনস্তার প্রতিবাদ বার্তা এবার গয়নায়

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 7, 2020 7:07 pm|    Updated: March 7, 2020 8:03 pm

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: খোঁপার গোলাপ দিয়ে কাছে ডাকা অনেক হয়েছে। এ বার দূরে যেতে বলার পালা। খোঁপার কাঁটাকে যৌন হেনস্তার প্রতিবাদের বার্তা দেওয়ার কাজে ব্যবহার করছেন আসানসোলে তরুণী ডিজাইনার। খোঁপার কাঁটায় লেখা থাকছে, ‘গা ঘেঁষে দাঁড়াবেন না।’ শুধু খোঁপা নয়, প্রতিবাদের বার্তা দিচ্ছে গয়না ও টিশার্টও। অভিনব অলঙ্কারের সৃষ্টিকর্তার দাবি, “প্রতিবাদটা আবশ্যিক। আর এই গয়না ও টিশার্ট আমার প্রতিবাদের ক্যানভাস।”

‘গা ঘেঁষে দাঁড়াবেন না।’ এমনটাই লেখা ছিল খোঁপার কাঁটায়। এই খোঁপার কাঁটার ছবিই ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। বাংলাদেশের তরুণী শিল্পী জিনাত জাহান নিশার এই ভাবনাকে কুর্নিশ জানিয়েছিল নেট-দুনিয়া। সেই পথ অনুসরণ করে প্রতিবাদী অলংকার তৈরি করছেন আসানসোলে তরুণী অর্পিতা সমাদ্দারও। বাসে ট্রেনে জনবহুল এলাকায় মহিলাদের অস্বস্তিবোধ করলে যে শব্দগুলি তাঁদের মুখ থেকে বেরিয়ে আসে সেই শব্দগুলি অলংকারে লেখা হয়েছে। যেমন-‘গা ঘেঁষে দাঁড়াবেন না’, ‘আমরা নারী সব পারি’, ‘দূরে থাকো বস’, ‘খোঁচা দেবেন না’। আবার টি-শার্টে লেখা রয়েছে, ‘ডাকছ তো বেশ, করে দেব শেষ’, ‘দূরত্ব বজায় রাখুন’ বা ‘ঘন্টা পরোয়া করি’ কিংবা ‘কন্যা রূপেন সংস্থিতা’।

 

[আরও পড়ুন : ‘ব্যানার-পোস্টার লাগালেই বাংলার গর্ব হওয়া যায় না’, মমতাকে খোঁচা দিলীপের]

এক শ্রেণির মানুষ বলছেন, টিশার্টে এমন বাক্য লিখে মোটেই সব সমস্যা মিটে যাবে না। কিন্তু অর্পিতার দাবি, “এই সব সমস্যার বিরুদ্ধে লড়ার প্রথম ও শেষ কথা হচ্ছে, আওয়াজ তোলা। মেয়েদের অনেকেই সব সময় গলা তুলে প্রতিবাদ জানাতে পারেন না। এই জাতীয় পোশাক তাঁদের সাহায্য করবে।” তিনি আরও বলেন, “রাস্তাঘাটে, বাসে-ট্রেনে মেয়েদের যে ভাবে নিত্য হয়রানির মুখে পড়তে হয়, তার বিরুদ্ধে বার্তা দেওয়ার জন্যই এই অভিনব ভাবনা।”

আসানসোল শ্রীপল্লীর বাসিন্দা অর্পিতা সমাদ্দার বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী। সম্প্রতি উত্তরপাড়াতে বিয়ে হয়েছে। ছোট থেকে ইচ্ছে ছিল অভিনব কিছু করার। মেলাতে মাটির গয়না বিক্রি হলেও চড়া দামের কারণে অনেক সময় কিনতে পারেননি। সেই ভাবনা থেকে প্লাই, কুট, মাটির ওপর রং দিয়ে গয়না তৈরি করছেন অর্পিতা। ইতিমধ্যে আসানসোলে ব্যাপক সাড়া পড়েছে প্রতিবাদী গয়না। অর্পিতা বলেন, “প্রথম-প্রথম নিজের তৈরি করে গয়না পড়তাম। পরে অনেকেই অর্ডার দিতে থাকেন। তারপর থেকে ধারাবাহিকভাবে এই কাজ করছি।”

[আরও পড়ুন : বসন্তোৎসব স্থগিতে বিষাদের সুর শান্তিনিকেতনে, বাতিল হোটেল-গাড়ি বুকিংও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement