১৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

রেস্তরাঁয় খাবার খেতে গিয়ে ‘বোকা প্রশ্ন’ করায় জরিমানা! ব্যাপারটা কী?

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 16, 2020 10:12 pm|    Updated: January 17, 2020 8:32 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রেমিকার হাত ধরে কিংবা ধরুন পরিজনদের সঙ্গে রেস্তরাঁয় গেলেন। হাতে মেনু কার্ড। সামনে দাঁড়িয়ে ওয়েটার। খাবার অর্ডার দেওয়া নিয়ে তাঁর সঙ্গে নানা কথা বলেই চলেছেন। এ দৃশ্য নতুন নয়। কিন্তু ভাবুন তো বিল হাতে নিয়ে যদি দেখেন প্রশ্ন করার জন্য আপনাকে টাকা গুনতে হবে, তবে কেমন হবে? ভাবছেন নিশ্চয়ই এ আবার হয় নাকি? আপনি বিশ্বাস করুন কিংবা অবিশ্বাস এমনই ঘটনা ঘটল আমেরিকার ডেনভারের এক রেস্তরাঁয়। যেখানে “বোকা বোকা প্রশ্নের” জন্য বিল মেটাতে হল রেস্তরাঁয় আসা ব্যক্তিকে। এই ব্যতিক্রমী ঘটনাই এখন নেটদুনিয়ার হটকেক।

সম্প্রতি ডেনভারের টমস ডিনার নামের ওই রেস্তরাঁয় এক ব্যক্তি খেতে গিয়েছিলেন। সেখানে খাওয়াদাওয়ার আগে ওয়েটারের সঙ্গে অনেক কথা বলেছিলেন। তারপর খাওয়াদাওয়া সারেন। স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় খাবার শেষ করে বিল চান। বিল দেখে রীতিমতো চমকে যান তিনি। নাহ, বিলের অঙ্ক দেখে নয়। বরং বিলে উল্লেখিত ‘১ স্টুপিড কোশ্চেন’ হিসাবে ৩৮ সেন্ট চার্জ দেখে। যার বাংলা তর্জমা করলে হয় বোকা প্রশ্ন করায় ভারতীয় মুদ্রায় ২৭ টাকা মূল্য ধার্য করা হয়। যা সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেন ওই ব্যক্তি। তারপর থেকেই গোটা নেটদুনিয়ায় ঘুরছে ওই রেস্তরাঁর বিলটি। যা দেখে হাসি চেপে রাখতে পারছেন না নেটিজেনরা।

[আরও পড়ুন: ১১৫ বছর পর স্বাদবদল, চিনির পরিবর্তে এবার বাজারে এল নলেন গুড়ের সীতাভোগ-মিহিদানা]

তবে টাইম মেশিনে চড়ে একটু পিছিয়ে গেলে বুঝতে পারা যাবে এই প্রথম ‘বোকা প্রশ্নের’ জন্য রেস্তরাঁয় আসা ব্যক্তির থেকে টাকা নেওয়া হয়নি। এর আগেও একাধিকবার এমন করা হয়। রেস্তরাঁর জেনারেল ম্যানেজার হান্টার ল্যান্ড্রি জানান, তাঁর কাকা টম মেনেসা এই প্রথা চালু করেছিলেন। ১৯৯৯ থেকেই ওই রেস্তরাঁতে চলে আসছে এই প্রথা। তাই অযথা বিল বাড়াতে না চাইলে এবার থেকে রেস্তরাঁয় গিয়ে সাবধান হোন। বোকা বোকা প্রশ্ন করার আগে দু’বার ভাবুন।

An Images
An Images
An Images An Images