২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে মন খারাপ? আইসক্রিম বানিয়ে খুশি করুন পরিবারের সকলকে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 1, 2020 4:59 pm|    Updated: May 1, 2020 4:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনে বন্ধ আইসক্রিমের দোকান। তাই বলে কি আইসক্রিম খেতে নেই? করোনা প্রভাবে খাদ্যপ্রেমীদের জীবন ছন্দে ব্যঘাত ঘটানো ঠিক নয়। ফলে ঘরোয়া পদ্ধতিতেই বানিয়ে নিন আইসক্রিম।

ice-cream

বাতাসে উষ্ণতার ছোঁয়া। কখনও বা নিম্নচাপের জেরে শীতল হাওয়ার পরশ। তবে ঘরের বাইরে পরিবেশ যাই হোক না কেন বাইরে বেরিয়ে আইসক্রিম পার্লারে যাওয়া নৈব নৈব চ। তাই শখের রাধুনি হয়ে বানিয়ে ফেলুন আইস ক্রিম। আর তাড়িয়ে তাড়িয়ে তা উপভোগ করুন পরিবারের সকলের সঙ্গে। চটপট দেখে নেওয়া যাক মেশিন ছাড়াই কী কী ঘরোয়া উপকরণ দিয়ে আইসক্রিম বানানো যাবে বাড়িতে। বাড়িতে ক্ষুদে সদস্য থাকা মানেই চকোলেট থাকা আবশ্যিক। তাই দুধ, চকোলেট, ভ্যানিলা এসেন্স, লেবু, চকো চিপস ও কুকিস। একটি পাঁচতারা রেস্তঁরার শেফ সিমরণ সিং জানান, “আইসক্রিম বানানোর প্রধান মজাই হল হাতে অনেকটা সময় নিয়ে বানাতে হবে। যত বেশি সময় ধরে আইসক্রিমকে ফেটানো যাবে ততবেশি তা খেতে ভাল লাগবে। এসে খাবারের ক্রিমের টেক্সচার খুব ভাল হয়।” শেফ কৌস্তব হলদিপুর বলেন, আইসক্রিম বানানোর আগে বেশ কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখা প্রয়োজন। তা হল-

  • যে পাত্রে আইসক্রিম বানানো হবে তা প্রথমে ফ্রিজে রেখে ঠান্ডা করে নেওয়া প্রয়োজন।
  • যে পাত্রে রাখা হবে তা আকারে খুব বড় হওয়ার দরকার নেই। যতো ছোট হবে তত ভালো আইসক্রিম জমবে।
  • বানিয়ে তা ১-২ দিনেরমধ্যে শেষ করে ফেলাই ভাল না হলে গলে যাবে।

[আরও পড়ুন:‘নিশ্চিন্তে বাড়ি ফিরতে পারব ভাবিনি’, রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদজ্ঞাপন কোটায় আটকে পড়া পড়ুয়াদের]

মাইক্রোওভেনে চকোলেটকে গরম করে গলিয়ে নিতে হবে। তাতে ক্রিম ও কনডেন্স মিল্ক দিয়ে মেশাতে হবে। বরফের পাত্রের উপর রেখে প্রচুর ফেটিয়ে নিতে হবে। এরপর ঠান্ডা হলে একটি পাত্রে রেখে তা ফ্রিজের ডিপে ১২-১৫ ঘণ্টার জন্য রেখে দিতে হবে। এরপর তা বের করে কয়েকটি বরফের টুকরো দিয়ে আবার ফেটাতে হবে এবার তাতে কুকিজের টুকরো, চকো চিপস দিয়ে মিশিয়ে দিতে হবে। ফের ডপে দিয়ে ১৫-২০ ঘণ্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। তারপর উষ্ণ বিকেলে পরিজেনেদের সঙ্গে আয়েশ করে খান সেই চকোলেট আইসক্রিম।

[আরও পড়ুন:লকডাউনে মধ্যবিত্তদের জন্য স্বস্তি, অনেকটাই কমল ভরতুকিহীন সিলিন্ডারের দাম]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement