BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধ্যান করলে বাড়তে পারে অবসাদ-দুশ্চিন্তা! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

Published by: Suparna Majumder |    Posted: August 17, 2020 5:51 pm|    Updated: August 17, 2020 5:51 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শরীরের থেকেও বেশি জটিল মন। মনের ইচ্ছেতেই চলমান শরীরের গতিপথ নির্ধারিত হয়। সঠিক পথের সন্ধান পেতে শান্ত মনের প্রয়োজন। অশান্ত মন শান্ত করতে অনেকেই ধ্যান বা মেডিটেশনের পথ বেছে নেন। প্রাচীনকাল থেকেই এ বিধি সুবিদিত। মুনী-ঋষিরাও ধ্যানের পক্ষেই বিধান দিয়ে গিয়েছেন। করোনার কঠিন সময়েও ধ্যানের মাধ্যমে মন শান্ত করার কথা, অবসাদ-দুশ্চিন্তা দূর করার কথা একাধিকবার শুনেছেন নিশ্চয়ই। ভেবেছেন কিংবা ধ্যান করতেও শুরু করেছেন। এদিকে একদল বিশেষজ্ঞ আবার দাবি করছেন, মন শান্ত হওয়ার বদলে ধ্যানের মাধ্যমে নাকি মানুষের মনে দুশ্চিন্তা-অশান্তি-অবসাদ বেশি হয়। এমনকী, অনেকের মধ্যে ভ্রমের সৃষ্টিও করে ধ্যান।

[আরও পড়ুন: এবার ফ্লিপকার্টেই মদ অর্ডার করতে পারবেন বঙ্গবাসী, জেনে রাখুন জরুরি পাঁচটি পয়েন্ট]

সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর পর থেকে মানসিক অবসাদ নিয়ে প্রচুর চর্চা হয়েছে। এক সময় মানসিক অবসাদের শিকার হয়েছিলেন দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone)। সুশান্তের মৃত্যুর পর নায়িকা সোশ্যাল মিডিয়ায় মানসিক অবসাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন। সম্প্রতি New Scientist ম্যাগাজিনের একটি সমীক্ষার রিপোর্ট পেশ করা হয়েছিল। সেখানে মানসিক অবসাদ-দুশ্চিন্তা-অশান্তি কমানোর জন্য ১২ জনের উপর পরীক্ষা করা হয়েছিল। প্রত্যেককে ধ্যান করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। আশা করা হয়েছিল ভাল ফল পাওয়া যাবে। হয় ঠিক তার বিপরীত। ১২ জনের বেশিরভাগই জানান তাঁরা ধ্যানের খুব একটা ভাল ফল পাননি। কী মনে হয়েছে তাঁদের? এই প্রশ্নের উত্তরে জানান, ধ্যানের মাধ্যমে তাঁরা আরও অশান্ত বোধ করেছেন। অনেকের মধ্যে ভ্রমেরও সৃষ্টি হয়েছে। কেউ কেউ আবার অশরীরীর অস্তিত্বের আভাসও পেয়েছেন। এতে তাঁদের শান্তি আরও নষ্ট হয়েছে।

meditation

[আরও পড়ুন: Facebook নিয়ন্ত্রণ করে বিজেপি-RSS! বিতর্কের জেরে অভিযোগ ওড়াল জুকারবার্গের সংস্থা]

২০১৭ সালে ব্রাউন ও ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ব বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকেও ধ্যান নিয়ে পরীক্ষা-নীরিক্ষা করা হয়েছিল কিছু মানুষের মধ্যে। তাঁদেরও অধিকাংশ ধ্যান নিয়ে বিরূপ মত ব্যক্ত করেছিলেন। বলা হয়েছিল, অধিকাংশ মানুষ ধ্যানের পর নিজেদের অলৌকিক ক্ষমতার অধিকারীও মনে করছেন। ভ্রমের শিকার হচ্ছেন। পরলৌকিক জগতের অস্তিত্বের আভাসও পাচ্ছেন অনেকে। তবে একই উপায়ে অবশ্য একাধিক মানুষের মন শান্ত হয়েছে। তাঁরা নিজেদের মনোসংযোগ বাড়াতে পেরেছেন বলে দাবি করেছেন।

তাহলে আপনি কী করবেন? ভাল কিংবা মন্দ, তা একবার অবশ্যই নিজে পরীক্ষা করে দেখতে পারেন। আপনার শরীর ও মনের অবস্থা আপনিই সবচেয়ে ভাল বুঝতে পারবেন। তাই নিজের অভিজ্ঞতার পরই সিদ্ধান্ত নেবেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement