BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৯ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জানেন, অন্তঃসত্ত্বাদের জন্য দোলের রং কতটা ক্ষতিকারক?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 20, 2019 8:13 pm|    Updated: March 20, 2019 8:13 pm

Colours on Holi can affect unborn baby, says study

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রং খেলুন। মেতে উঠুন রঙের উৎসবে। তবে সাবধানে। হোলির আগে প্রত্যেকে এ পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তবে এ কথা সবচেয়ে বেশি মাথায় রাখা উচিত অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের। কারণ ভ্রুণের পক্ষে রং অত্যন্ত ক্ষতিকর।

আয়ুর্বেদিক উপায়ে তৈরি রং দিয়েই এককালে রং খেলার চল ছিল। গাছের ফুল, পাতা ইত্যাদি থেকে তৈরি রং গায়ে লাগলে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কা থাকত না। কিন্তু এখন বাজারে যেসব রং পাওয়া যায়, তার প্রায় পুরোটাই ভেজাল। নানাধরনের কেমিক্যাল মেশানো থাকে তাতে। বিশেষ করে জলে মিশিয়ে যেসব রং ব্যবহার করা হয় তা আরও বেশি ক্ষতিকর। অন্তঃসত্ত্বা মহিলা এবং তাঁর গর্ভের সন্তানের উপর এই রঙের প্রভাব মারাত্মক হতে পারে।

আয়ুর্বেদিক রং বলে বাজারে আজকাল যেসমস্ত রং বিক্রি হয়, সেগুলি দিয়েও গর্ভবতীদের না খেলার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। পরীক্ষা ছাড়া কোনওভাবেই বোঝার উপায় নেই রংটি আদৌ আয়ুর্বেদিক কিনা। তবে তা তো আর সবসময় সম্ভব নয়। তাই গর্ভবতী অবস্থায় দোল উৎসবে মেতে ওঠা বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। জেনে নিন, রং কীভাবে অন্তঃসত্ত্বা ও তাঁর ভ্রুণের ক্ষতি করতে পারে।

বর্তমানে বেশিরভাগ রঙেই ডাই, কেমিক্যাল, ধাতব পদার্থ অথবা গুঁড়ো কাচ থাকে। শিশু বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লিড অক্সাইড, কপার সালফেট ভ্রুণের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। এতে গর্ভবতীর নার্ভ ও শ্বাসকষ্টে সমস্যা হতে পারে। গবেষণা বলছে, এতে গর্ভপাত অথবা সময়ের আগে প্রসবের সম্ভাবনা বাড়ে। এমনকী সদ্যোজাতর ওজন স্বাভাবিকের তুলনায় কমও হতে পারে। এখানেই শেষ নয়, কেমিক্যাল মেশানো রং ও আবির চোখ, ত্বক ও ফুসফুসের চরম ক্ষতি করতে পারে।

তাহলে কি রং খেলবেন না অন্তঃসত্ত্বারা? অবশ্যই খেলবেন। তবে কিছু সতর্কতা মেনে। যদি একান্তই খেলার ইচ্ছা থাকে তবে বাড়িতেই তৈরি করুন রং। ফল বা ফুলের রস থেকে রং বানিয়ে খেলতে পারেন। তাছাড়া যে আয়ুর্বেদিক রঙে ডাই থাকে, তা ব্যবহার করেও রঙের উৎসবে মেতে উঠতে পারেন। হেনা দিয়ে খেলতে পারেন হোলি। তবে কোনও ঝুঁকি না নিয়ে বাড়িতে রং তৈরি করে নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। রং খেলুন। তবে নিজেকে ও নিজের সন্তানকে সুস্থ রেখে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে