২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  শীতের প্রকোপ কেটে গেলেও রাতের দিকে বা ভোরের দিকে বাতাসে এখনও রয়েছে একটা শিরশিরানি ভাব। কিন্তু আবার দিনের বেলায় বিরক্তিকর গরম। প্রকৃতির এই খামখেয়ালিপনায় ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আপনার চুল। একদিকে  চুলের জেল্লা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে, অন্যদিকে আবার চুল পড়ার সমস্যাও দেখা দিচ্ছে। এমন হলে মন-মেজাজ কার ভাল থাকে? কিন্তু আকাশে-বাতাসে যখন বসন্তের হাতছানি তখন কি মনখারাপ করে ঘরে বসে থাকলে চলে! কবি সাহিত্যিকরা বলেন এটাই প্রেম করার আদর্শ কাল। তাই এবার আর চুলের জন্য মন খারাপ নয়। বরং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে বিভিন্ন ঘরোয়া উপায়ে বাড়িয়ে তুলুন চুলের জেল্লা। আর নিজের সুন্দর কেশের জাদুতে মন জয় করুন প্রেমিকের।

১. হট অয়েল ম্যাসাজ: এই সময় চুলের যত্নে নিয়মিত তেল ম্যাসাজ করা খুবই জরুরি। তা না হলে চুলের শুষ্কতা বেড়ে যেতে পারে। এতে চুলের গোড়া আলগা হয়ে চুল পড়া বেড়ে যাবে। তাই রাতে নারকেল তেল হালকা গরম করে সপ্তাহে অন্তত দু’দিন চুলে ম্যাসাজ করে নিতে পারেন। তারপর সকালে উঠে বেরোনোর আগে ভাল করে শ্যাম্পু করে ফেলুন। আর রাতে গরম তেল লাগানো সম্ভব না হলে দিনের বেলাও তেল লাগিয়ে ঘণ্টা দু’য়েক রেখে শ্যাম্পু করে নিতে পারেন।

Hot Oil_Web

২. অ্যালোভেরা ব্যবহার: যুগ যুগ ধরে ত্বকের সৌন্দর্য চর্চায় অ্যালোভেরা ব্যবহার করা হয়। আবার চুলের যত্নেও অ্যালোভেরার জুড়ি নেই। তাই এই সময় রাতের দিকে অ্যালোভেরা জেল চুলে লাগিয়ে ঘুমোতে পারেন। আর পরদিন সকালে উঠে শ্যাম্পু করে ফেলুন। এটি চুলে বাড়তি পুষ্টি জোগাবে এবং চুলের জেল্লাও ফেরাবে।

৩. খাদ্যভ্যাস পরিবর্তন করুন: চুল পড়া রোধ করতে প্রতিদিন বেশি করে ফলমূল ও শাকসবজি খান। দিনে অন্তত আট থেকে দশ গ্লাস জল খাওয়াও জরুরি। এছাড়া চুলের পুষ্টির জন্য ভিটামিন-ই ট্যাবেলট খেতে পারেন।

[প্রপোজ ডে-র এই গল্প কি আপনার জীবনেও সত্যি?]

৪. কিছু অভ্যাস পরিবর্তন করুন: ভেজা চুল আঁচড়ানো ঠিক নয়। এছাড়া চুল শুকানোর জন্য ঘন ঘন হেয়ার ড্রাই ব্যবহার করাও চুলের পক্ষে ক্ষতিকর। তাই এই সময় এগুলো যতটা পারবেন এড়িয়ে চলুন।

চুলকে রুক্ষতা থেকে বাঁচাতে উপরের নিয়মগুলি যেমন মেনে চলবেন তেমনই শ্যাম্পু করার পর অবশ্যই চুলে কন্ডিশনার ব্যবহার করতে ভুলবেন না। কারণ কন্ডিশনার যেমন চুলকে রুক্ষতা থেকে বাঁচায়, তেমন আবার চুলের জেল্লাও বৃদ্ধি করে।

[ছোট্ট ব্রণ থেকেই হতে পারে মারাত্মক বিপদ, সতর্ক থাকুন]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং