BREAKING NEWS

২৬ বৈশাখ  ১৪২৮  সোমবার ১০ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বাড়তি পটাসিয়াম শরীরে মিশছে না তো? এবার হিসেব দেবে বঙ্গ সন্তানের ‘পটাশিয়াম ক্যালকুলেটর’

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 22, 2021 11:37 pm|    Updated: January 22, 2021 11:37 pm

Potassium-food

গৌতম ব্রহ্ম: ঘটনা ১ – পকোড়ার সঙ্গে বেশি পরিমাণ টম্যাটো সস খেয়ে ফেলেছিলেন এক তরুণ কিডনির রোগী। মাসখানেকের মধ্যেই কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট হওয়ার কথা ছিল। কে জানত, সেই সস কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে প্রাণ কাড়বে ২২ বছরের ইঞ্জিনিয়ারের!
ঘটনা ২- মাস তিনেক আগের কথা। শীত পড়তেই নলেন গুড়ের তৈরি পিঠে পেটপুরে খেয়েছিলেন নাগেরবাজারের ৫৬ বছরের এক কিডনির রোগী। ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট এবং মৃত্যু।

দু’টি ক্ষেত্রেই খলনায়ক পটাশিয়াম (Potassium)। টম্যাটো সস ও নলেন গুড়, দু’টির মধ্যেই যা মাত্রাতিরিক্ত পরিমাণে মজুত। প্রথম রোগীর ক্ষেত্রে সসের কারণে রোগীর ‘হাইপারক্যালেমিয়া’ হয়েছে। দ্বিতীয় ক্ষেত্রে ভিলেন নলেন গুড়। কিডনি রোগীর ক্ষেত্রে উচ্চ পটাশিয়ামযুক্ত খাবার বিষের সমতুল। পটাশিয়ামের হেরফের হলে স্নায়ুতন্ত্র-হার্টেও বিরূপ প্রভাব পড়ে।

[আরও পড়ুন: ধূমপায়ী ও নিরামিষাশীদের করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি কম! সমীক্ষায় মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য]

অথচ পটাশিয়াম ছাড়া আমাদের চলবেও না। কোন খাবারে কতটা পটাশিয়াম আছে, তা এবার হিসাব কষে বলে দেবে অ্যাপ। যার পোশাকি নাম পটাশিয়াম ক্যালকুলেটর। পাঁচ, ছ’রকম সবজি দিয়ে তরকারি হোক বা স্যুপ, এমনকী কোথায় কী মশলা ব্যবহার হচ্ছে, তাও হিসেব কষে পটাশিয়ামের মাত্রা জানিয়ে দেবে এই ক্যালকুলেটর।

অ্যাপের উদ্ভাবক একজন বাঙালি চিকিৎসক। নেফ্রোলজিস্ট ডা. প্রতিম সেনগুপ্ত। ডায়েট চার্ট নিয়ে রোগীরা খুবই সমস্যায় পড়েন। চার্টের বাইরে কোনও খাবার হলে সমস্যা বাড়ে। প্রতিমবাবু জানালেন, “সাধারণ মানুষের পক্ষে এই হিসাব রাখা খুব মুশকিল। তাছাড়া সিলেবাসের বাইরে থাকা খাবার চেখে দেখার ইচ্ছেপূরণে এই ক্যালকুলেটর মুশকিল আসান।” হায়দরাবাদের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ নিউট্রিশন’—এর ইনপুট দিয়েই এই অ্যাপ তৈরি করা হয়েছে। ফলে, ভারতীয় ভূখণ্ডে সহজলভ্য সব খাবারের মাপই জানে এই অ্যাপ। এই ধরুন, একটি পাঁচমেশালি তরকারি রাঁধবেন। তাতে পটাশিয়াম কত মাত্রায় থাকবে। সেই তরকারি রোগী কতটা পরিমাণে খাবে, তা কড়ায় গণ্ডায় হিসাব কষে বলে দেবে এই অ্যাপ। বিভ্রান্তির কোনও জায়গাই নেই। এটাই বিশ্বের প্রথম পটাশিয়াম ক্যালকুলেটর। এমনই দাবি করলেন প্রতিমবাবু।

[আরও পড়ুন: ফুটন্ত চা’য়ে গলা মাখন, স্বাদ কেমন? ভাইরাল ভিডিওয় সরগরম নেটদুনিয়া]

হাইপারক্যালেমিয়া। রক্তে প্রয়োজনের অতিরিক্ত পটাশিয়াম হয়ে গেলেই এই সমস্যা শুরু হয়। সেক্ষেত্রে পেশি, স্নায়ু, হার্ট ও কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। চিকিৎসকরা জানালেন, রক্তে পটাশিয়ামের স্বাভাবিক মাত্রা ৩.৫—৪.৫ মোল ইকুইভ্যালেন্ট পার লিটার। এর বেশি—কম হলেই সমস্যা। প্রতিমবাবুর দাবি, ৫—৮ শতাংশ কিডনি রোগীর মৃতু্যর জন্য হাইপারক্যালেমিয়া দায়ী। সুতরাং রক্তে পটাশিয়ামের সঠিক মাত্রা বজায় রাখা অত্যন্ত জরুরি। ইতিমধ্যেই ‘কিডনি কেয়ার অ্যাকাডেমি’র তত্ত্বাবধানে থাকা এই অ্যাপ আড়াইশোজন ডাউনলোড করেছেন। এঁদের অন্যতম কমল বসু ও জাফরিন আহমেদ। দু’জনেরই পর্যবেক্ষণ, “এই অ্যাপ অত্যন্ত জরুরি। খুব সুবিধা হচ্ছে। যাঁদের বাড়িতে কিডনির রোগী আছেন, তাঁদের প্রত্যেকেরই এই অ্যাপ সঙ্গে রাখা উচিত।” ঠিকানা www.kidneycare-academy.com

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement