৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিকল্প চিকিৎসা ব্যবস্থায় জোর দিতে মোদি সরকারের আয়ুষ মন্ত্রক বেশ সক্রিয়। এবার বিদেশ থেকে গাছগাছড়া এনে তা দিয়ে নানা আয়ুর্বেদিক ওযুধ তৈরির জন্য চুক্তিবদ্ধ হল ভারত। সোমবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে বৈঠক কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে আয়ুষ মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল মেডিসিন্যাল প্ল্যান্ট বোর্ড’ এবং পেরুর স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ
হেলথ’-এর মধ্যে ঔষধি গাছের বিষয়ে সহযোগিতার লক্ষ্যে একটি চুক্তিপত্র স্বাক্ষরের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে।

[ আরও পড়ুন : দংশন করেছে বিষধর কালাচ? এই লক্ষণগুলি দেখা মাত্রই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন]

ভারত এবং পেরু – দুটি দেশই জৈব বৈচিত্রে ভরপুর। উভয় দেশেই নানা ঔষধি গাছ আছে। যা চিরায়ত ঔষধ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। ভারত এবং পেরুর মধ্যে সৌহার্দ্যপূর্ণ এবং সহযোগিতামূলক সম্পর্কের খাতিরে এবার সেই কাজেই হাতে হাত মেলাল দু দেশ। জৈব বৈচিত্র্যে ভরপুর ভারতে ৭ হাজারেরও বেশি ঔষধি গাছ আছে, যেগুলি আয়ুর্বেদ, ইউনানি, সিদ্ধা, হোমিওপ্যাথি ঔষধের জন্য ব্যবহৃত হয়। পেরুও একইভাবে জৈব বৈচিত্র্যে ভরপুর। লাতিন আমেরিকার এই দেশের নানা গাছ থেকে ঔষধ তৈরি করা হয়। বহু আগে থেকেই পেরুর সঙ্গে এব্যাপারে কাজ করতে আগ্রহী ভারত। এতদিন পর হলেও তা বাস্তবায়িত হওয়ায় নতুন আশা দেখা হচ্ছে। এবার দু দেশ এবিষয়ে একত্রে
কাজ করতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। আয়ুষ মন্ত্রক সূত্রে খবর, এর জন্য কোনও বাড়তি অর্থ লাগবে না।ন্যাশনাল মেডিসিনাল প্ল্যান্ট বোর্ডের জন্য যে বাজেট বরাদ্দ ও কর্মসূচি আছে, সেখান থেকেই গবেষণা, প্রশিক্ষণ, সম্মেলনের প্রয়োজনীয় অর্থ পাওয়া যাবে।

প্রস্তাবিত চুক্তিটি দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। উভয় দেশের কাছেই যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দুটি সংস্থা কাজ শুরু করবে। এই কাজ হবে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে। কাজ শুরু হলে, এই মুহূর্তে ভারতে আয়ুর্বেদিক ওষুধের যেটুকু ঘাটতি রয়েছে, তা পূরণ হয়ে যাবে বলে আশা আয়ুষ মন্ত্রকের।

[ আরও পড়ুন : নেট তথ্যে বিপত্তি, ডেঙ্গু রোগীদের মর্মান্তিক পরিণতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে পেঁপে পাতা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং