১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  ‘Old wine in a new bottle’- এই প্রবাদটির সঙ্গে বোধহয় অল্পবিস্তর আমরা সকলেই পরিচিত। বাংলাতেও রয়েছে এরকমই একটি প্রবাদ ‘পুরনো চাল ভাতে বাড়ে’। তা বাড়ে বইকী! পুরনো এমন অনেক জিনিস রয়েছে যা রীতিমতো এখনকার ফ্যাশনেবল ট্রেন্ডের সঙ্গে টেক্কা দিয়ে নিজের পাল্লা ভারী করে নিতে পারে। এই কাঠের আসবাবের কথাই ধরুন। এখনকার দিনে কাঠের যা দাম, তাতে করে মধ্যবিত্ত ফ্ল্যাট-বাড়িতে আজকাল আর কাঠের আসবাব প্রায় ওঠে না বললেই চলে! পুরনো কাঠের আসবাব যেরকম ভারী পেল্লাই আকৃতির, ডিজাইনও ‘বহত খুব’!

[আরও পড়ুন: সংসারে শ্রীবৃদ্ধি চান? বাস্তুশাস্ত্র মেনে সাজিয়ে তুলুন রান্নাঘর ]

কিন্তু বর্তমানে ট্রেন্ডি অন্দরের সাজে পুরনো আসবাব কেমন যেন বেমানান ঠেকে! ফ্যাশনেবল সব হালকা মেটেরিয়ালের আসবাব, যেগুলো রাখতে ঘরেও কম জায়গা লাগে। মানুষ আজকাল এধরণের আসবাবের দিকেই ঝোঁকে বেশি। কিন্তু সেই পুরনো আমলের অ্যান্টিক জিনিসের প্রতি অনেকেই একটা আলাদা টান অনুভব করেন। তবে আজকাল ফ্ল্যাটবাড়ি হওয়ায়, জায়গা কম, তাই সেসব ভারী ডিজাইনের আসবাব আর কেউ ঘরে ঢোকাতে চান না। কিন্তু একটু ভোল পালটে নিলেই সেসব আপনার হাল ফ্যাশনের অন্দরসজ্জার সঙ্গে দিব্যি মানাবে। যেমন ধরুন, দাদু-ঠাকুরদাদের আমলের আরাম কেদারা। শৈশবে দুলতে দুলতে কিংবা আছাড় খেয়ে পড়ার অনেক স্মৃতিই রয়েছে। এবার বলি সেসব অ্যান্টিক আরাম কেদারা গুলিকে ট্রেন্ডি গৃহসজ্জার অঙ্গ কীভাবে করে তুলবেন।

প্রথমত, ঘুণ ধরেছে কি না দেখে নিন। ঘুণ ধরলে খোলনলচে বদলানো বাঞ্ছনীয়। নাহলে একবার পছন্দমতো উডেন কালারে পালিশ করে নিন। বসার জায়গায় নতুন শক্ত কাপড় লাগিয়ে নিন। একটু রংচঙে হলেও মন্দ হয় না। প্রয়োজনে একটা কুশান রাখুন। চেয়ারের মূল কাঠামোয় উডেন রং পছন্দ না করলে বাহারি রং দিয়ে নকশা একে নিন চেয়ারের গায়ে। আর বসার জায়গায় কাপড়ের পরিবর্তে পাটের দড়ি দিয়ে বুনেও লাগিয়ে নিতে পারেন। এতে ডিজাইন খুলবে।

[আরও পড়ুন: অগোছালো বাড়িতে আচমকা অতিথির আগমন? সামাল দিন এভাবে]

এবার বলি কোথায় রাখতে পারেন এরকম অ্যান্টিক পিস? বারান্দা ভাল অপশন। তবে বসার ঘরে রাখলে একরম দেওয়াল নির্বাচন করবেন যা একটু হাইলাইট করা কিংবা ওয়াল আর্টের টেক্সচার রয়েছে যার মধ্যে। পড়ার ঘরেও আরাম কেদারা রাখতে পারেন। মধ্যাহ্নভোজন সেরে কেদারায় গা এলিয়ে পছন্দের গল্পের বই, আহা! গৃহসজ্জা আরেকটু চাঙ্গা করতে চাইলে আরাম কেদারার উপর আধুনিক হ্যাংগিং লাইট কিংবা পাশে ল্যাম্প স্ট্যান্ড রাখতে পারেন। পায়ের কাছে একটা ‘ফুটরেস্ট’ দিলেও মন্দ হয় না। অতিথি আপনার প্রশংসা করতে বাধ্য। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং