৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চাকরি কিংবা ব্যবসা করে প্রতি মাসে টাকা উপার্জন সকলেই করেন। তবে তা সত্ত্বেও মাসের শেষে পকেট গড়ের মাঠ। টাকার অভাব। আর পকেট ফাঁকা মানেই মাথা গরম। বিনা কারণে প্রায় সকলের উপরে রেগে যাচ্ছেন। কিন্তু কে আর চায় সংসারের শান্তি নষ্ট হোক। সকলেই ভগবানের কাছে সুখশান্তির জন্য প্রার্থনা করেন। তবে তাতেও মনের কোণে যেন সুখ সেই অধরাই হয়ে রয়েছে তাই তো? আপনার অবস্থা যদি এরকম হয়, তাহলে অবশ্যই মেনে চলুন কিছু টোটকা। তাতেই দেখবেন মাসভর দিব্যি সুখে শান্তিতে কাটছে আপনার জীবন।

[আরও পড়ুন: অগোছালো বাড়িতে আচমকা অতিথির আগমন? সামাল দিন এভাবে]

বেশিরভাগ গৃহস্থই মানেন বৃহন্নলারা অত্যন্ত শুভ। অনেকেই মনে করেন, তাঁদের দেখে বাড়ির বাইরে বেরোলে নাকি সমস্ত কাজই সফল হয়। তাই তাঁদের অর্থদান করেন অনেকেই। কিন্তু গৃহশান্তি বজায় এবং সমৃদ্ধির জন্য শুধু অর্থদানই যথেষ্ট নয়। অর্থাভাব থেকে মুক্তি পেতে চাইলে বৃহন্নলাদের হাসি মুখে দানধ্যান করতে হবে। এরপর দানের ওই অর্থ থেকেই নিতে হবে এক টাকা। তবে খেয়াল রাখবেন তিনি যেন হাসি মুখে আপনাকে টাকা দেন। কিন্তু ওই টাকা ব্যাগে রেখে দিলেন আর আপনি ভাববেন সৌভাগ্য ফিরবেন, তা সম্ভব নয়। তাই ওই টাকা একটি হলুদ কাপড়ে মুড়ে ফেলুন। এবার তা রেখে দিন আপনার টাকার ব্যাগে। ওই টাকা যদি আপনার ব্যাগে থাকে, তাহলে আপনার সৌভাগ্য ফিরবেই। মাসের শেষ কিংবা শুরু কখনই আপনার অর্থকষ্ট হবে না।

[আরও পড়ুন: ডিমের খোসা ফেলে দেন? ব্যবহার জানলে আপনি চমকে উঠবেন]

পাশাপাশি অর্থকষ্ট মেটাতে চাইলে রাতে বাড়িতে বালতি ভরতি জল রেখে দিন। রাতভর ঢাকনা ছাড়া বালতিতে রাখা ওই জল সকালে ঘুম চোখ খুলেই দেখুন। এই জল ভরা বালতিই আপনার জীবনে সমৃদ্ধি নিয়ে আসবে। গৃহশান্তি বজায় রাখার জন্য এই টোটকা আপনার কাজে লাগবেই।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং