৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিজেপির সঙ্গে আঁতাঁত! রাজনৈতিক বিতর্কে সাফাই দিল ‘পক্ষপাতদুষ্ট’ ফেসবুক

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 21, 2020 8:42 pm|    Updated: August 21, 2020 8:44 pm

An Images

সাংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপির সঙ্গে ফেসবুকের আঁতাঁতের অভিযোগে সরগরম ভারতীয় রাজনীতি। কংগ্রেস-সহ বিরোধীদের দাবি গেরুয়া শিবিরের প্রতি পক্ষপাতিত্ব করছে মার্কিন সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট। শুক্রবার সমস্ত অভিযোগ খারিজ করে সংস্থাটি সাফ জানিয়েছে, তাদের কাজের পদ্ধতি অত্যন্ত স্বচ্ছ এবং কোনও ধরনের পক্ষপাতিত্ব তারা করে না।

[আরও পড়ুন: পোস্টাল ব্যালটে ভোট দিতে পারবেন করোনা আক্রান্তরা, নয়া নির্দেশিকা জারি নির্বাচন কমিশনের]

এদিন Facebook India’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর অজিত মোহন সাফ বলেন, “বিগত কয়েকদিন ধরেই আমাদের বিরুদ্ধে নীতিগতভাবে পক্ষপতিত্বের অভিযোগ উঠছে। আমরা এটা সাফ করে দিতে চাই যে, ঘৃণা ও ইচ্ছাকৃত বিদ্বেষ ছড়ানোর চেষ্টার আমরা বিরোধী। আমাদের সংস্থাটির কর্মপদ্ধতি অত্যন্ত স্বচ্ছ। কাজের সূত্রে বেশ কয়েকটি প্রশাসন ও রাজনীতির ময়দানে আমাদের অভিজ্ঞতা হয়েছে। এর মাধ্যমে আমরা সমাজের প্রতি কর্তব্য পালন করি। কোনও প্রবন্ধ বা কন্টেন্ট জনতার কাছে পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত এককভাবে কেউ নেয় না, এই প্রক্রিয়ায় অনেকেই জড়িত। ফলে এখানে পক্ষপাতিত্বের কোনও জায়গা নেই।”

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ফেসবুক ইন্ডিয়ার (Facebook India) কার্যকলাপ নিয়ে সরগরম হয় দিল্লির রাজনীতি। ভারতে কেন বিজেপিকে বিশেষ সুবিধা পাইয়ে দেওয়া হচ্ছে?‌ কেন বিদ্বেষমূলক মন্তব্য ছড়াতে দেওয়া হল, তা নিয়ে সম্পূর্ণ তদন্তের দাবি জানিয়েছিল কংগ্রেস। সরব হয়েছিল বিরোধীরাও। এই প্রসঙ্গে কংগ্রেসের পক্ষ তিন পাতার এক চিঠি পাঠানো হয় মার্ক জুকারবার্গের সংস্থাকে। সেই চিঠিতে ফেসবুক ইন্ডিয়া পরিচালনার জন্য নতুন টিম নিয়োগের পরামর্শ দেন এআইসিসি সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল। এছাড়া, বিজেপির সঙ্গে আঁতাঁত বিতর্কে এবার Facebook কর্তৃপক্ষকে জরুরি তলবও করেছে সংসদীয় কমিটি (Parliamentary Standing Committee)। সমন পাঠিয়ে আগামী ২ সেপ্টেম্বর ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে কমিটির সামনে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া ওই সমনে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের (Ministry of Electronics and Information Technology) আধিকারিকদেরও সেখানে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ঋণ শোধে ব্যর্থ অনিল আম্বানি, SBI-এর দায়ের মামলার ভিত্তিতে প্রশাসক নিয়োগ আদালতের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement