BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

জানেন, ঘনিষ্ঠ আলিঙ্গন-চুমুতে ভাল থাকে আপনার হার্ট?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 22, 2018 6:17 pm|    Updated: September 22, 2018 6:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করমর্দন, আলিঙ্গন, চুম্বন, মানেই গেল গেল রব। পশ্চিমী সংস্কৃতির ছোঁয়ায় আমাদের মূল্যবোধ, সংস্কার সব রসাতলে গেল এমনই দাবি সমাজের পিতামহদের। কিন্তু শরীর ছোঁয়া মানেই যৌনতা নয়। এমনই দাবি ফিনল্যান্ডের গবেষকদের। তাঁদের মতে শরীরী স্পর্শে শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি হয়। শেখার ক্ষমতা বাড়ে, সিদ্ধান্ত নেওয়ার দৃঢ়তাও জন্মায়।

এর সপক্ষে বিস্তর তথ্যও পেশ করেছেন গবেষকরা। জানিয়েছেন, স্পর্শ মস্তিষ্কের সামনের অংশকে সক্রিয় করে তোলে। মস্তিষ্কের সামনের অংশ অর্থাৎ অর্বিটোফ্রন্টাল কর্টেক্স শিক্ষা, সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা, সামাজিক ব্যবহারের মতো আচরণকে নিয়ন্ত্রণ করে। অন্যদিকে বন্ধু বা ভালবাসার মানুষের স্পর্শ অর্থ বহন করে। অর্থাৎ মনের ভাব প্রকাশের ক্ষেত্রে ভাষার ভূমিকা পালন করতে পারে সামান্য একটু ছোঁয়া। কথায় বলে যে অনুভূতি প্রকাশ করা সব সময় সম্ভব হয় না, একটু ছুঁয়ে অনায়াসেই তা বুঝিয়ে দেওয়া যায় ভালবাসার মানুষকে। অর্থাৎ, স্পর্শ মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ককে দৃঢ় করে।

[ঘনিষ্ঠ হোন, কিন্তু ইন্টারনেট দেখে কখনওই এসব করবেন না]

স্পর্শ মানে যেমন শুধুই যৌনতা নয়, তেমনই স্পর্শ ছাড়া যৌনতার কোনও অস্তিত্ব নেই। তবে যে কারণেই স্পর্শ করা হোক না কেন, আখেরে তা মানুষের স্নায়ুতন্ত্রকে উদ্দীপিত করে, রক্ত চলাচল বাড়ায়। হৃৎপিণ্ডকে সতেজ রাখে। যার নেট রেজাল্ট, চির যৌবন লাভ। তাই কখনও হাতের উপর হাতের আলতো ছোঁয়া, তো কখনও ঘনিষ্ঠ আলিঙ্গন, আবার কখনও নিবিড় চুম্বন, এক ধাক্কায় কমিয়ে দিতে পারে আপনার বয়স। বার্ধক্যেও শিরা-উপশিরায় ছুটতে পারে উষ্ণ রক্তের স্রোত।

শুধুই পাশ্চাত্য নয়, স্পর্শের উপকারিতা সম্পর্কে ওয়াকিবহাল প্রাচ্যও। তাই আমাদের দেশেও আলিঙ্গনের ঐতিহ্য রয়েছে। বিজয়া দশমীর কোলাকুলি তারই উদাহরণ। যা সামাজিকতার অন্যতম বড় উদাহরণ। দেশ-কাল-সংস্কৃতি ভেদে স্পর্শ করার পদ্ধতি বদলেছে। কেউ সম্ভাষণ জানাতে করমর্দন করে, আলিঙ্গন করে চুম্বন করে তো কেউ পায়ে হাত দিয়ে স্পর্শ করার মাধ্যমে শ্রদ্ধা প্রদর্শন করে। মোটের উপর স্পর্শের উপকারিতার কথাই স্বীকার করা হচ্ছে। গবেষণা পত্রে বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন, প্রেম হোক বা অন্য সম্পর্ক মনের আবেগ, অনুভূতি বোঝানো বা সম্পর্কের বুনিয়াদ মজবুত করতে স্পর্শের জুড়ি নেই। অন্যদিকে শরীরও সুস্থ থাকে। যদিও অপরিচিত ব্যক্তির ক্ষেত্রে প্রথমেই স্পর্শের পক্ষে মত দিচ্ছেন না গবেষকরা। ভালবাসার মানুষকে বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে চুম্বনের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। মহিলাদের ক্ষেত্রে এর কার্যকারিতা উল্লেখযোগ্য।

[পাত্র খুঁজছেন? বিয়ে করার আগে দেখে নিন এই বিষয়গুলি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement