২৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সকালবেলা অ্যালার্মের পর অ্যালার্ম বেজে যায়৷ কিন্তু ঘুম আর কিছুতেই ভাঙতে চায় না৷ মন বলে, পাঁচ মিনিট একটু ঘুমোই, তারপর উঠছি৷ ভোরবেলা বিছানা ছেড়ে উঠতে গেলে, এই ভাবনা ভাবেন সকলেই৷ কিন্তু ধরুন, তাড়াহুড়ো নেই৷ সকাল ন’টার সময় আপনি অ্যালার্ম দিয়ে রেখেছেন৷ ইতিমধ্যেই সাত-আটঘণ্টা ঘুমিয়েছেন আপনি৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও ঘুম থেকে উঠতে ইচ্ছা করছে না৷ জোর করে ঘুম থেকে উঠতে হচ্ছে আপনাকে৷ বাড়ির বড়রা বলতেই পারেন, এটি অলসতার লক্ষণ৷ কিন্তু চিকিৎসকরা বলছেন অন্য কথা৷ তাঁদের মতে, আপনার শরীরে বাসা বেঁধে রয়েছে কোন জটিল রোগ৷

[ভুলো মন? মগজাস্ত্রের জোর বাড়াতে মেনে চলুন এই নিয়ম]

চিকিৎসাবিজ্ঞানের পরিভাষায় শারীরিক এই অবস্থার নাম ডাইসেনিয়া৷ ক্লিনোম্যানিয়া বলেও পরিচিতি রয়েছে এই রোগটির৷ চিকিৎসকদের মতে, এই উপসর্গ দেখা দিলেও কোনও সময়ই ঘুম সম্পূর্ণ হয় না৷ সাত-ঘণ্টা ঘুমানোর পরেও ক্লান্তিভাব দেখা দিতে পারে৷ ঘুম থেকে সময় মতো উঠতে পারেন না বলে, উদ্বিগ্নতাতেও ভোগেন এই রোগীরা৷ তার ফলে স্বাভাবিকভাবে বহুবার ঘুম ভেঙে যাওয়ার সমস্যাতেও ভোগেন তাঁরা৷ দীর্ঘদিন ধরে এই সমস্যায় ভোগার ফলে খিটখিটে হয়ে যান অনেকেই৷ চিকিৎসা বিজ্ঞান যথেষ্ট এগোলেও, এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার মতো কোনও ওষুধই এখনও পাওয়া যায় না বলেই জানান চিকিৎসকরা৷ তবে কিছু নিয়ম মেনে চললে, এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব বলেও মত চিকিৎসকদের৷

[শীতেও রুক্ষ হবে না আপনার শিশুর চামড়া, জেনে নিন ঘরোয়া উপায়]

নিয়মগুলি হল:

১. প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমোতে যান৷ ঘুমোতে যাওয়ার আগে গান শুনুন৷ তবে শোওয়ার ঘরে কোনও শব্দ যাতে না ঢোকে সেদিকে খেয়াল রাখুন৷ প্রয়োজনে সব আলোই বন্ধ রাখুন৷ একই সময়ে ঘুম থেকে ওঠারও অভ্যাস করুন৷

২. অনেকেই পোষ্য বিড়াল, কুকুরকে নিয়ে রাতে ঘুমোতে যান৷ সেই অভ্যাস থাকলে কিন্তু বাড়তে পারে ঘুমঘোর না কাটার সমস্যা৷ তাই আজ থেকে ঘুমোতে যাওয়ার আগে পোষ্যকে দূরে সরিয়ে রাখুন৷

৩. প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে ব্যায়াম করুন৷ যোগাভ্যাসের মাধ্যমে দুশ্চিন্তা মুক্ত হতে পারেন আপনি৷

৪. আপনার ডায়েটে কি কফি জাতীয় সামগ্রী রয়েছে? তবে তা এখনই খাওয়া বন্ধ করুন৷ ভাল ঘুমের জন্য তার পরিবর্তে আপনার ডায়েটে থাক দুধ চা কিংবা গ্রিন টি৷

৫. মদ্যপান থেকে বিরত থাকাই ভাল৷ ধূমপানও কিন্তু আপনার রাতের ঘুম কাড়ার জন্য যথেষ্ট৷ তাই তাও এড়িয়ে যাওয়াই ভাল৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং