BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিন-বিরোধী আন্দোলনেও ঘোচেনি TikTok প্রীতি, জানেন কত শতাংশ ভারতীয় অ্যাপটি ছাড়তে রাজি?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 22, 2020 6:18 pm|    Updated: June 22, 2020 6:18 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে উত্তপ্ত ভারত-চিন সীমান্ত। গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ হন ২০ জনভারতীয় জওয়ান। পালটা দেয় ভারতও। তারপর থেকেই চিনের বিরুদ্ধে ক্ষোভের আগুন জ্বলছে দেশজুড়ে। চিনা পণ্য, চিনা অ্যাপ বর্জনের দাবিতে সরব হয়েছে দেশবাসী। চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিংপিংয়ের ছবি-কুশপুতুল পুড়িয়ে জায়গায় জায়গায় চলছে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ। কিন্তু এত কিছুর মধ্যেও যুব প্রজন্মের টিকটক (TikTok) প্রীতিতে এতটুকু ভাটা পড়েনি। এই অ্যাপটি বহাল তবিয়তেই রয়ে গিয়েছে স্মার্টফোনে। সমীক্ষাই সেই ছবিটা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে।

বিষয়টা আরও একটু খোলসে করে বলা যাক। গত ১৭ এবং ১৮ জুন দ্য ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ হিউম্যান ব্র্যান্ডসের (IIHB) তরফে মোবাইল ফোনেই একটি সমীক্ষার আয়োজন করা হয়। যেখানে কয়েকটি সহজ প্রশ্নের উত্তর দিতে হয় অংশগ্রহণকারীদের। ৪০৮ জনের উপর করা এই সমীক্ষায় জিজ্ঞেস করা হয়, চিনা অ্যাপ হওয়ায় কি টিকটক অ্যাপটি আনইনস্টল করতে তারা রাজি?

[আরও পড়ুন: বিনামূল্যে করোনা পরীক্ষার ই-মেল পেয়েছেন? সাবধান! হতে পারে বড় বিপদ]

সমীক্ষাতে জানা যায়, এর মধ্যে ৫৬ শতাংশ আগেই জানত TikTok একটি চিনা অ্যাপ। ৩২ শতাংশর এ বিষয়ে ধারণা ছিল না। কিন্তু মাত্র ২১ শতাংশই অ্যাপটি স্মার্টফোন থেকে সরিয়ে ফেলতে রাজি। ৬২ শতাংশ সঠিকভাবে নিজেদের সিদ্ধান্তই জানাতে পারেনি। আর ১১ শতাংশ সাফ জানিয়ে দিয়েছে তারা TikTok আনইনস্টল করতে ইচ্ছুক নয়। সমীক্ষায় আরও জানা গিয়েছে, যে ৩২ শতাংশ মানুষই জানে তাদের ফোনের অ্যাপগুলি কোন দেশের। বেশিরভাগই এ বিষয়ে জানতে আগ্রহী নয়। অনেকের আবার এ নিয়ে প্রচুর ভুল ধারণাও রয়েছে।

যেমন ৩৭ শতাংশ ভারতীয়র ধারণা Oppo একটি ভারতীয় ব্র্যান্ড। ৪১ শতাংশ মনে করেন ব্রিটেন অথবা মার্কিন কোম্পানি তৈরি করে Vivo-র স্মার্টফোন। মনে করা হচ্ছে, এই কারণে এখনও ইচ্ছা থাকলেও অনেকেই চিনা পণ্য বা অ্যাপ বর্জন করতে পারেননি। তবে সব জেনেশুনেও টিকটকের প্রতি টান রয়েছে গিয়েছে অনেকের। অথচ মজার বিষয় হল, ৭২ শতাংশ ভারতীয়রই দাবি, কোনও চিনা কোম্পানির স্পনসরশিপ নেওয়া উচিত নয় আইপিএলের। বুঝুন কাণ্ড!

[আরও পড়ুন: এক ক্লিকেই সাফ হতে পারে অ্যাকাউন্ট, বড়সড় সাইবার হানার আশঙ্কা ভারতে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement