২২ চৈত্র  ১৪২৬  রবিবার ৫ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

টুইটারের প্রোফাইল পিকচারে ডেলিভারি বয়ের ছবি দিল Zomato India, কেন জানেন?

Published by: Sayani Sen |    Posted: February 29, 2020 4:37 pm|    Updated: February 29, 2020 4:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অফিসের কথা শুনে ক্লান্ত হয়ে যান অনেকেই। কাজ করতে করতে তাঁর ক্লান্তি যে বাড়তে থাকে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু হাসিমুখে অফিসের কাজ করতে দেখেছেন কাউকে? উত্তর ‘না’ হলে একটি ভিডিওই আপনার চিন্তাধারা বদলে দিতে পারে। দিব্যি হাসিমুখে প্রায় বারো ঘণ্টা ধরে প্রতিদিন গ্রাহকদের বাড়ি বাড়ি ঘুরে খাবার সরবরাহ করেও সংস্থা নিয়ে বেজায় খুশি জোম্যাটোর এক ডেলিভারি বয়। ওই যুবকের ছবিই এখন জোম্যাটো ইন্ডিয়ার টুইটার অ্যাকাউন্টের প্রোফাইল পিকচার।

ফ্রাঙ্ক মার্টিন নামে এক টুইটার ব্যবহারকারী সম্প্রতি টিকটক ভিডিও পোস্ট করেন। যাতে দেখা গিয়েছে সোনু নামে জোম্যাটোর এক ডেলিভারি বয়কে। কারও সঙ্গে কথোপকথনে ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। ওই ডেলিভারি বয় বলেছেন, “দিনে সাড়ে তিনশো টাকা পাই। মেলে ইনসেনটিভও। ১২ ঘণ্টা কাজ করি। তবে সময়মতো জোম্যাটো আমাদের টাকা এবং খাবার দেয়। যে খাবারের অর্ডার বাতিল হয়ে যায়, সেই খাবারও আমাদের দিয়ে দেওয়া হয়।” কথা বলার সময় তাঁর মুখ দিয়ে ঝরে পড়ছিল হাসি। তিনি যে তাঁর চাকরি নিয়ে যথেষ্ট খুশি, তা মুখেচোখেই প্রকাশ পায়।

[আরও পড়ুন: অনলাইনে খাবারের লড়াইয়ে এবার আমাজন, জোর টক্কর জোম্যাটো-সুইগিকে]

বৃহস্পতিবার জোম্যাটো ইন্ডিয়াকে ট্যাগ করে পোস্ট করা ওই ভিডিও মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। তাঁর হাসি মুখ মন ভুলিয়ে দেয় নেটিজেনদের। বারো ঘণ্টা কাজ করেও কোনও চাকুরিজীবী এত হাসি খুশি থাকতে পারেন, তা অবাক করেছে নেটিজেনদের।

ভিডিওয় দেখতে পাওয়া ডেলিভারি বয় মন ছুঁয়ে যায় সংস্থারও। জোম্যাটো ইন্ডিয়া টুইটার অ্যাকাউন্টের প্রোফাইল পিকচার বদল করে ওই ডেলিভারি বয়ের ছবি দেন। এবার থেকে ওই হ্যান্ডলটি ‘হ্যাপি রাইডার ফ্যান অ্যাকাউন্ট’ বলেও জানায় কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

Advertisement

Advertisement