BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

অনলাইনে খাবারের লড়াইয়ে এবার আমাজন, জোর টক্কর জোম্যাটো-সুইগিকে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: February 27, 2020 5:21 pm|    Updated: May 18, 2020 8:08 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জবর খবর! খাদ্যপ্রেমীদের জন্য সুখবর। জোম্যাটো (Zomato), সুইগির (Swiggee) মতো ভারতের বাজারে অনলাইন ফুড অ্যাপ হিসেবে পাল্লা দিতে আসছে আমাজন অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ। ভারতের বাজারে অনলাইন খাবারে চাহিদা মেটাতে মাঠে নামছে এই আমেরিকান সংস্থাটি। তবে ভারতের প্রথম শহর হিসেবে তারা বেঙ্গালুরুকেই (Bengaluru) বেছে নিয়েছেন। এখানেই তারা প্রথম অনলাইন খাবার ডেলিভারি করবেন। আমাজনের তরফে জানানো হয়েছে, বেঙ্গালুরুর বাসিন্দাদের অধিকাংশই আইটির সঙ্গে যুক্ত থাকায় তাঁদের মধ্যে অনলাইনে খাবার অর্ডার করার চাহিদা অন্যান্য শহরের থেকে অনেক বেশি।

এতদিন ভারতের অনলাইন খাবারের অ্যাপ হিসেবে বাজার দখল করে রেখেছিল জোম্যাটো ও সুইগি। মাঝে উবের অনলাইন খাবারের অ্যাপ হিসেবে বাজার দখলের চেষ্টা চালালেও সেই সংস্থাকে কিনে নিয়ে বাজার দখল করে নেয় জোম্যাটো। এবার তাদের সঙ্গে লড়াইয়ে নামছে আমাজন। তবে আমাজন আসার আগেই প্রমাদ গুনছে ঘোড়দৌড়ে থাকা বাজারের বাকি দুই অনলাইন অ্যাপ সুইগি ও জোম্যাটো। ইতিমধ্যেই ক্রেতাদের টানতে আকর্ষণীয় ছাড় দিতে শুরু করেছে তারা। বদল আনা হয়েছে তাদের খাবার দামের তালিকাতেও। তবে নিজেদের প্রভাব জমানোর এটাই সেরা সময় বলে মনে করছে এই মার্কিন রিটেলার সংস্থা। আমেরিকার এই সংস্থা মুদিখানার সামগ্রী থেকে দৈনিক ব্যবহারের জিনিস, ইলেক্ট্রনিক সামগ্রী থেকে খাবার সবকিছু দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে আমাজন। এখানেই শেষ নয়, আমাজন প্রাইমের(Amazon Prime) একটি সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে সব কিছু এক সঙ্গে পাওয়ার একটা সুবিধাও গ্রাহকদের জন্য আনতে চলেছে আমাজন।

 [আরও পড়ুন:কন্টিনেন্টালের স্বাদ পেতে চাইলে ঘুরে আসুন কলকাতার এই রেস্তরাঁগুলিতে]

প্রথমে অবশ্য শুধুমাত্র নিজেদের কর্মীদের জন্যই এই সুবিধা চালু করবে আমাজন। বেঙ্গালুরুর পাঁচটি জায়গায় পাওয়া যাবে এই খাবার। তারপর ধীরে ধীরে সবার জন্য এই সুবিধা চালু করা হবে। ইতিমধ্যেই বেঙ্গালুরুর বিভিন্ন রেস্তরাঁর মালিকদের সঙ্গে কথা বলা শুরু করে দিয়েছে আমাজন। সূত্রের খবর, ইনফোসিসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এনআর নারায়ণ মূর্তির সংস্থা ক্যাটামারানের সঙ্গে যৌথভাবে এই ফুড ডেলিভারি অ্যাপ আনতে চলেছে আমাজন। তারা জানায়, রেস্তরাঁগুলির থেকে ১০-১৫ শতাংশ কমিশন নেবে আমাজন। বর্তমানে সুইগি বা জোম্যাটো সংশ্লিষ্ট রেস্তরাঁ থেকে ২৫-৩০ শতাংশ কমিশন নিয়ে থাকে। বাজার ধরার জন্যই এই কমিশনের পরিমাণ কমানো হয়েছে বলেও দাবি করেন বিভিন্ন রেস্তরাঁর মালিকরা। কারণ, কমিশন কম নিলে খাবারের দামও অন্যান্য ফুড ডেলিভারি অ্যাপের তুলনায় গ্রাহকরা সস্তায় পাবেন আমাজনে। ফলে মানুষের মনে জায়গা দখল করতে সুবিধা হবে তাদের। মার্চ মাসে চালু হতে চলেছে এই আমাজন ফুড ডেলিভারি অ্যাপ। আমাজন প্রাইমের সাহায্যে এই অ্যাপের মেম্বার হওয়া যাবে। এই অ্যাপের মাধ্যমে ভারতীয় খাবার তো বটেই, কোরিয়ান ও জাপানি খাবারও অর্ডার দেওয়া যাবে বলে জানা যায়। আমাজনের তরফে জানানো হয়েছে, গ্রাহকদের চাহিদাকেই তারা প্রাধান্য দেবেন। তাই গ্রাহকদের চাহিদা মতো নিজেদের অ্যাপে বদল আনবেন তারা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement