৫ ফাল্গুন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাসপাতাল রয়েছে। রোগীও ভরতি রয়েছেন। চিকিৎসক, নার্স সকলেই রয়েছেন। কিন্তু রোগীদের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে রোবট। নিশ্চয়ই অবাক হচ্ছেন। ভাবছেন, এমন হাসপাতাল আবার কোথাও রয়েছে? যতই অবাক হোন না কেন, চিনের নানজিংয়ের এক হাসপাতালে সম্প্রতি এমনই প্রযুক্তির ব্যবহার করা হচ্ছে। ওই হাসপাতালে রোবটের মাধ্যমেই রোগীর কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে খাবার। করোনা সংক্রমণ রুখতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ মন ছুঁয়েছে নেটিজেনদের।

করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে কাঁটা চিন। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। প্রাণহানির নিরিখে সার্সকেও ছাপিয়ে গিয়েছে মারণ চিনা ভাইরাস। এদিকে, এখনও পর্যন্ত কোনও নির্দিষ্ট ওষুধ বা ইঞ্জেকশনের খোঁজ পাওয়া যায়নি। তাই ধীরে ধীরে মহামারির আকার ধারণ করেছে করোনা। মনে করা হচ্ছে, সংস্পর্শে ছড়িয়ে যেতে পারে ভাইরাস। তাই যতটা সম্ভব আক্রান্তদের থেকে সুস্থ ব্যক্তিদের দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু হাসপাতালে সেই দূরত্ব বজায় রাখা কার্যত অসম্ভব। একজন রোগীকে দেখভালের জন্য চিকিৎসককে তাঁর কাছে যেমন যেতেই হচ্ছে, তেমনই আবার ওষুধপত্র নিয়ে তাঁর কাছে যাচ্ছেন নার্সরা। রোগীর খাবারদাবার পৌঁছে দেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্মীরাও তাঁর কাছে যাচ্ছেন। তাই হু হু করে একজনের শরীর থেকে অপরের দেহে ছড়িয়ে যাচ্ছে করোনা ভাইরাস।

[আরও পড়ুন: ৩ কোটি মানুষের তথ্য ফাঁসের জের, ফেসবুকের উপর কড়া নজরদারির নির্দেশ আদালতের]

মারণ চিনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে নয়া প্রযুক্তির সাহায্য নিল চিনের নানজিংয়ের একটি হাসপাতাল। এবার আর রোগীদের কাছে খাবার পৌঁছনোর দায়িত্ব নিতে হবে না কোনও হাসপাতাল কর্মীকে। পরিবর্তে অসুস্থদের কাছে খাবার, ওষুধপত্র পৌঁছে দেবে রোবট। সেই চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী রোগীকে দেখভাল করবে। পৌঁছে দেবে খাবার, জল, ওষুধপত্র। এই রোবটটি ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরতে পারবে। রোগীর কাছে গেলে সাধারণ মানুষের শরীরে ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা কয়েকগুণ বেড়ে যায় বলেই দাবি বিশেষজ্ঞদের। সেক্ষেত্রে প্রশ্ন একটাই, রোবটের মাধ্যমে ওই ভাইরাস কি কোনওভাবে ছড়িয়ে পারতে পারে? যদিও বিজ্ঞানীদের দাবি, ভাইরাস যাতে কোনওভাবেই রোবটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তে না পারে প্রযুক্তিগত দিক থেকে সেই বন্দোবস্ত আগেই করা হয়েছে। তাই অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই।

রোবটই এখন সোশ্যাল মিডিয়ার হটকেক। সকলেই চিনের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের প্রশংসা করছেন। অসাধারণ কাজ হওয়ায় প্রশংসা কুড়োচ্ছে এই রোবট।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং