BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আমাজন থেকে পোশাক কিনে ১১ হাজার টাকা খোয়ালেন নিমতার দম্পতি

Published by: Sulaya Singha |    Posted: August 28, 2019 7:04 pm|    Updated: August 28, 2019 7:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ন’টা ছ’টার ব্যস্ততায় এখন শপিংয়ের আদর্শ জায়গা ই-কমার্স সাইট। মোবাইলে অ্যাপ ডাউনলোড করে অর্ডার করলেই সময়ে জিনিস পৌঁছে যায় বাড়ির দরজায়। ফলে সময় ও খাটনি দুই-ই বাঁচে। যতদিন যাচ্ছে, ততই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে অনলাইন শপিংয়ের এই কনসেপ্ট। কিন্তু কয়েনের উলটো পিঠের মতোই এর খারাপ দিকও কম নেই। আর এবার সেই খারাপ অভিজ্ঞতাই হল নিমতার এক দম্পতির। আমাজন থেকে জামা কিনে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে খোয়ালেন ১১ হাজার টাকা।

[আরও পড়ুন: ৫ নয়া ফিচারে আরও আকর্ষণীয় হতে চলেছে হোয়াটসঅ্যাপ]

সম্প্রতি নিমতার দুর্গানগরের নারায়ণপল্লির বাসিন্দা জয় সরকার আমাজনে একটি পোশাক অর্ডার করেছিলেন। সময় মতো সেটির ডেলিভারিও পান। কিন্তু পোশাকটি তাঁর গায়ের মাপের না হওয়ায় সেটি ফেরত পাঠিয়ে দেন তিনি। এরপর আমাজনের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা রিটার্ন করে দেওয়া হয়। কিন্তু অ্যাকাউন্টে যে মোবাইল নম্বরে দেওয়া ছিল, সেখানে টাকা ফেরতের কোনও মেসেজ আসেনি। তারপরই ঘটে বিপত্তি। বিষয়টি জানতে গুগল সার্চ করে আমাজনের হেল্প লাইন নম্বর বের করেন জয় সরকার। সেখানে ফোন করে গোটা ঘটনা খুলে বলেন। ওই নম্বর থেকে পালটা ফোন করা হয় ক্রেতা জয়কে। অভিযোগ, তাঁর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বর, ডেবিট কার্ডের সিভিভি নম্বর ও ওটিপি জেনে নেন ফোনের ওপারের ব্যক্তি। কিছুক্ষণ পর আবার ফোন আসে। জানানো হয়, নিমতার বাসিন্দার অ্যাকাউন্টে কিছু সমস্যা হচ্ছে। তাই তাঁর স্ত্রী মেঘার অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত তথ্য জানতে চাওয়া হয়। কোম্পানির কর্মীকে বিশ্বাস করে সমস্ত খুঁটিনাটি তথ্য দিয়ে দেন দম্পতি।

[আরও পড়ুন: পিছিয়ে যাচ্ছে ‘জিও ফাইবার’ পরিষেবা চালুর দিনক্ষণ! কী জানাল সংস্থা?]

এরপরই তাঁদের ফোনে মেসেজ আসে, দু’জনের অ্যাকাউন্ট থেকে যথাক্রমে সাত হাজার টাকা ও চার হাজার টাকা তোলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই নিমতা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁরা। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ। যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। এই ঘটনায় ই-কমার্স সাইটের উপর আস্থা হারিয়েছেন দম্পতি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement