BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

কলকাতার যুবতীর টুইটার অ্যাকাউন্টে পাক হ্যাকারদের হানা, বিতর্কিত মেসেজ প্রধানমন্ত্রীকে

Published by: Tanujit Das |    Posted: September 18, 2019 4:35 pm|    Updated: September 18, 2019 5:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সবেমাত্র টুইটারে তাঁকে ফলো করতে শুরু করেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ নোটিফিকেশন পেয়েই আনন্দে আত্মহারা হয়ে উঠেছিলেন কলকাতার বাসিন্দা বছর ছত্রিশের সীমন্তিনী বোস৷ কিন্তু তাঁর সেই আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না৷ এক ঘণ্টার মধ্যে হ্যাকারদের গ্রাসে চলে গেল তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট৷ এবং সেই অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রীর টুইটারে পাঠান হল কাশ্মীর ইস্যুতে বিতর্কিত মেসেজ৷ তাঁর বন্ধুদের পাঠান হল অশ্লীল মেসেজ৷ টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করে মহিলা জানতে পারেন, লাহোর থেকে তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেছে একদল হ্যাকার৷

[ আরও পড়ুন: রাজীবের খোঁজে কলকাতায় সিবিআইয়ের বিশেষ টিম, ময়দানে নামছেন ১৪ জন বাঘা অফিসার ]

ডিজিটাল মার্কেটিং পেশার সঙ্গে যুক্ত সীমন্তিনী বোস বলেন, ‘‘মঙ্গলবার গভীর রাতে হঠাৎ আমার কাছে একের পর এক বন্ধুর ফোন আসতে থাকে৷ ওদের কাছ থেকেই আমি জানতে পারি, আমার অ্যাকাউন্ট থেকে ওদের অশ্লীল মেসেজ পাঠান হয়েছে৷ এরপর সঙ্গে সঙ্গে আমরা টুইটার অ্যাকাউন্টটি খোলার চেষ্টা করি৷ কিন্তু ব্যর্থ হই৷ উলটে আমার কাছে টুইটারের তরফে মেসেজ আসে, কেউ আমার ভুল পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে আমার টুইটার খোলার চেষ্টা করছে৷ পাসওয়ার্ড রিসেট করার মেসেজ আসে আমার কাছে৷ পাসওয়ার্ড পরিবর্তনের চেষ্টা করলেও, তা সম্ভবপর হয়নি৷’’

[ আরও পড়ুন: উৎসবের শহরকে যানজট মুক্ত করতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ, ঘোষণা সিপি অনুজ শর্মার ]

তাঁর কথায়, ‘‘এক বন্ধুর পরামর্শ মতো মঙ্গলবার গভীর রাতেই বিষয়টি জানিয়ে টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করি আমি৷ ফিরতি ইমেলে টুইটারের তরফে আমাকে জানায়, পাকিস্তানের লাহোরে থেকে আমার অ্যাকাউন্টটি খোলা হয়েছে৷’’ এখানেই শেষ নয়, তিনি জানতে পারেন, হ্যাক হওয়ার মুহূর্তের মধ্যে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে বিভিন্ন বিতর্কিত ও অশ্লীল টুইট করা শুরু হয়েছে৷ সেই জন্যই বন্ধুদের কাছ থেকে ফোন পেতে থাকেন তিনি৷ তবে বুধবার ভোরের দিকে অ্যাকাউন্টটি ফিরে পান সীমন্তিনী৷ এবং এরপর তিনি দেখতে পার, তাঁর অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে কাশ্মীর নিয়ে বিতর্কিত মেসেজ পাঠান হয়েছে৷ এই ঘটনায় স্বভাবতই আতঙ্ক পড়েছেন মহিলা৷ অ্যাকাউন্টটা ফিরে পাওয়ার পর, একাধিক টুইটে সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন তিনি৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement