১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

অর্ণব আইচ ও সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়: পুজোর আগে থেকেই শহরকে যানজটমুক্ত করার নির্দেশ দিলেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। ওসি থেকে শুরু করে কলকাতা পুলিশের সমস্ত কর্তাকেই মঙ্গলবার লালবাজারে ডেকে এই কড়া নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি, এদিন সমস্ত ডিসিদের কাছ থেকে প্রতিটি থানার পারফরম্যান্স জানতে চান পুলিশ কমিশনার।

[আরও পড়ুন: শ্যামাপ্রসাদের নামে শারদ সম্মান, নয়া উদ্যোগ বিজেপির সংগঠন ‘বঙ্গপ্রয়াস’-এর]

জানা গিয়েছে, ডিসি-দক্ষিণ ও ডিসি-মধ্য ছাড়া আর কেউই এবিষয়ে বিশেষ কিছু বলতে পারেননি। তখনই নগরপাল জানান, “পরের ক্রাইম মিটিং-এ এই বিষয় নিয়ে আপনাদের কাছ থেকে জানতে চাইব। আপনারা ভালভাবে তৈরি হয়ে আসবেন।” এদিন ছিল লালবাজারে পুলিশ কমিশনারের ‘ক্রাইম মিটিং’। সেই কারণে সমস্ত থানার ওসি, সমস্ত ডিভিশনের ডিসি ও অন্যান্য পদস্থ পুলিশ কর্তারা এই মিটিং-এ উপস্থিত ছিলেন। হাজির ছিলেন ট্রাফিকের ডিসি ও সমস্ত ট্রাফিক গার্ডের ওসিরাও। এই বৈঠকে পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা জানান, “কয়েকদিন ধরেই শুনতে পাচ্ছি শহরের বিভিন্ন রাস্তায় অনেক যানজট হচ্ছে। সেই খবর আমার কানে আসছে। শহরে এই যানজট চলতে দেওয়া যাবে না। পুজো আসার আগেই শহরে এত যানজট কেন? অবিলম্বে শহরকে যানজটমুক্ত করতে হবে। এরজন্য প্রয়োজন হলে ট্রাফিকের ডিসি ও সমস্ত ট্রাফিক গার্ডের ওসিদেরও রাস্তায় নেমে যানজট সামাল দিতে হবে। সামনেই পুজো। পুজোতেও দেখবেন শহরকে যানজটমুক্ত রাখা যায় কিনা।”

উল্লেখ্য, ক’দিন ধরেই শহরের বিভিন্ন রাস্তায় চরম যানজট ছড়িয়ে পড়তে দেখা গিয়েছে। তার উপর বেশ কিছু রাস্তা জুড়ে তৈরি হয়ে গিয়েছে পুজোর মণ্ডপ। চলছে কেনাকাটার পর্ব। সেই কারণেই যানজট বাড়ছে। শহরজুড়ে পুলিশের নাকা তল্লাশির প্রশংসা করেন পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা। তিনি জানান, “শহরের বিভিন্ন রাস্তায় রাতের নাকা তল্লাশি যেমন চলছে তা চলবে। বরং আরও ভাল করে এই তল্লাশি চালাতে হবে। এক্ষেত্রেও নাকা তল্লাশি চালাতে হবে থানার ওসিদের রাস্তায় নেমে। এরজন্য ট্রাফিকের গার্ডগুলির সঙ্গে সমন্বয় বজায় রেখেই নাকা তল্লাশি চালাবেন থানার ওসিরা।” পাশাপাশি বিভিন্ন মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির উপর জোর দেন পুলিশ কমিশনার। তিনি জানান, “বিভিন্ন আদালতে জমে থাকা মামলাগুলির দ্রুত নিষ্পত্তি করতে হবে। নিষ্পত্তির পাশাপাশি কোনও মামলায় অভিযুক্ত আসামির সাজা করাতে পারলে তদন্তকারী পুলিশ আধিকারিককে পুরস্কৃত করা হবে।” লালবাজারে টানা ৪৫ মিনিট ধরে চলে পুলিশ কমিশনারের এই ‘ক্রাইম মিটিং’।

[আরও পড়ুন: বেশি টাকা না দেওয়ায় যুবতীকে শারীরিক হেনস্তা, অভিযুক্ত অ্যাপ ক্যাব চালক]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং