BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফের ডিজিটাল স্ট্রাইক কেন্দ্রের! নিষিদ্ধ আরও ৪৭ চিনা অ্যাপ, এবার নজরে PUBG

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 27, 2020 12:31 pm|    Updated: July 27, 2020 2:43 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের চিনকে (China) প্রত্যাঘাত ভারতের। আবারও ডিজিটাল স্ট্রাইক করল মোদি সরকার। সোমবার একধাক্কায় আরও ৪৭টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের নজরে আরও ২৭৫টি অ্যাপ (App)। তার মধ্যে পাবজি, লুডোর মতো একাধিক অ্যাপ (App)। রয়েছে। অভিযোগ, এই অ্যাপগুলোর মাধ্যমে গ্রাহকদের তথ্য বেজিংয়ে পাচার হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে টিকটক লাইট, হেলো লাইট, শেয়ার ইট লাইট, বিগো লাইভ-এর মতো অ্যাপগুলি। 

একাধিক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, আগেই নিষিদ্ধ হওয়া ৫৯টির অ্যাপের ক্লোন অ্যাপগুলিকেও (Clone App) এদিন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যদিও নিষিদ্ধ অ্যাপের সম্পূর্ণ তালিকা এখনও প্রকাশ করেনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রক। তবে সূত্রের খবর, দেশের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমিকতার কথা মাথায় রেখেই বিভিন্ন অ্যাপের উপর নজর রাখছে সরকার। বিপদ বুঝলে সেগুলি নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। আপাতত আরও ২৭৫টি অ্যাপের (App)। উপর নজর রাখা হচ্ছে।  তার মধ্যে জনপ্রিয় মোবাইল গেম পাবজিও (PUBG) আছে।

[আরও পড়ুন : ফের কেন্দ্রের ডিজিটাল স্ট্রাইক, প্লে স্টোর থেকে ‘উধাও’ এই চিনা অ্যাপগুলি]

সূত্রের খবর, বহু অ্যাপ আছে যেগুলি অন্য দেশের সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে চালনা করে বেজিং। মূল সার্ভার থাকে চিনের কোনও প্রদেশে। ফলে সহজেই ব্যবহারকারীর সমস্ত তথ্য হাতিয়ে নেওয়া যায়। যেমন পাবজি (PUBG) চালনা করে চিনা সংস্থা টেনসেন্ট। 

[আরও পড়ুন : আত্মনির্ভরতার পথে আরও এক ধাপ! এই প্রথম দেশেই তৈরি হচ্ছে iPhone 11, জানাল কেন্দ্র]

গত দুমাস ধরেই পূর্ব লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনার পারদ চড়ছে। তা চূড়ান্ত আকার নেয় গত ১৫ জুন। গালওয়ান সীমান্তে চিনা সেনার অতর্কিত হানায় শহিদ হন ২০ ভারতীয় জওয়ান। এরপর থেকেই চিনা পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছেন অনেকে। পাশাপাশি চিনকে ভাতে মারার চেষ্টা করছে কেন্দ্র সরকার। ইতিমধ্যে চিনের বিভিন্ন সংস্থার একাধিক বরাত বাতিল করেছে রেল ও বিএসএনএল। এরপরই ৫৯টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্র সরকার। যা চিনকে কার্যত বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে ফেলছে। এরপর ফের ৪৭টি অ্যাপ বন্ধ করে নতুন করে চিনকে ধাক্কা দিল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement