BREAKING NEWS

২২  আশ্বিন  ১৪২৯  শুক্রবার ৭ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

লেহ চিনের অংশ! ‘মহাভুলে’র পর টুইটারকে কড়া ভাষায় সতর্ক করল কেন্দ্র

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 23, 2020 11:34 am|    Updated: October 23, 2020 3:13 pm

India sternly warns Twitter after it shows Leh as a part of China | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌  লাদাখ এবং লাদাখের রাজধানী লেহ (Leh) শহরকে চিনের (China) মধ্যে দেখানো হয়েছিল টুইটারের (Twitter) মানচিত্রে! এই ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় সরকার। টুইটারের এই ভুল চোখে পড়তেই জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইটকে কড়া ভাষায় সতর্ক করে ভুল শোধরানোর নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। টুইটারের সিইও জ্যাক ডরসিকে ইমেল করে এ ব্যাপারে সতর্ক করেছেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের সচিব অজয় সাহনি। তিনি লিখেছেন, “ভারতের সংবিধান অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীর এবং লাদাখ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। ভারতে ব্যবসা করছেন বলে ভারতের সংবিধানকে সম্মান করা, ভারতবাসীর আবেগকে সম্মান করা এবং ভারতের সার্বভৌমত্বকে সম্মান করা আপনাদের কর্তব্য।’’

তিনি আরও লেখেন, ‘‘টুইটারের মতো একটি বিখ্যাত সংস্থার এই ধরনের মহাভুল ভারতীয়দের মনে টুইটার নিয়ে খারাপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করছে। এতে সোশ্যাল মিডিয়া হিসাবে আপনাদের উদ্দেশ্য এবং নিরপেক্ষতাও প্রশ্নের সামনে দাঁড়িয়েছে। তাই আপনারা এখনই ভুল সংশোধন করুন। এই ভুল হওয়া উচিত নয়। না হলে আপনাদের মনোভাব নিয়ে সন্দেহ ও প্রতিবাদ দানা বাঁধতে পারে ভারতে। এই ঘটনার জেরে টুইটারকে সতর্ক করতে বাধ্য হচ্ছি আমরা।”

[আরও পড়ুন: আরও বিপাকে আমাজন–ফ্লিপকার্ট, এবার এই কারণে দুই সংস্থাকে নোটিস কেন্দ্রের]

সম্প্রতি টুইটারের মানচিত্রে লাদাখের বেশ কিছুটা অংশ এবং লে শহরকে চিনের মধ্যে দেখানো হয়েছিল। জাতীয় নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ নীতিন গোখলের অভিযোগ, তিনি রবিবার লেহ বিমানবন্দরের সামনে একটি লাইভ ভিডিও করছিলেন। সেই সময়ই ধরা পড়ে ভিডিওর লোকেশনে দেখানো হচ্ছে এটা চিনের অন্তর্গত। লোকেশন হিসেবে যে চিনের নাম দেখানো হচ্ছে তা লক্ষ্য করেছিলেন ‘অবজারভার রিসার্চ ফাউন্ডেশনে’র সভাপতি কাঞ্চন গুপ্তাও।

তিনি তাঁর টুইটে লেখেন, ‘‘তাহলে টুইটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভূগোলটা বদলে দেবে। এবং জম্মু ও কাশ্মীরকে চিনের অংশ হিসেবে ঘোষণা করবে। এটা যদি ভারতীয় আইনের লঙ্ঘন না হয়, তাহলে কোনটা? ভারতীয় নাগরিকদের এর থেকে অনেক কম অপরাধের জন্য দণ্ডিত হতে হয়। নামী মার্কিন টেক সংস্থা কি আইনের ঊর্ধ্বে?’’ টুইটারে ক্ষোভ উগরে দেওয়ার পাশাপাশি তিনি কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকেও ট্যাগ করেন সেই পোস্টে।

[আরও পড়ুন:‌ বন্ধু গুগল ম্যাপ, ১১ বছর পর নিজের বাড়িতে ফিরল অপহৃত নাবালক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে