BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

আকসাই চিনকে ‘চিনের অংশ’ হিসেবে দেখানোর জের, উইকিপিডিয়াকে কড়া হুঁশিয়ারি কেন্দ্রের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 3, 2020 9:01 am|    Updated: December 3, 2020 9:01 am

Indian govt asks Wikipedia to remove wrong map showing Aksai Chin as part of China |Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখ নিয়ে ভারত-চিন অসন্তোষের মধ্যেই আকসাই চিন (Aksai Chin) নিয়ে বড়সড় পদক্ষেপ করল ভারত। বিতর্কিত ওই ভুখণ্ডকে চিনের অংশ হিসেবে দেখানোর জেরে অনলাইন তথ্যভাণ্ডার উইকিপিডিয়াকে (Wikipedia) কড়া হুঁশিয়ারি দিল নয়াদিল্লি। জানিয়ে দেওয়া হল, দ্রুত ওই ‘ভুল’ তথ্য না সরালে উইকিপিডিয়ার বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করবে দিল্লি। এমনকী, ভারতে এই অনলাইন তথ্য ভাণ্ডারের অ্যাকসেস বন্ধ পর্যন্ত করে দেওয়া হতে পারে।

আসলে উইকিপিডিয়াতে এই ‘ভুল’ তথ্যের ব্যাপারটি প্রকাশ্যে আসে টুইটারে জনৈক ব্যক্তির পোস্ট থেকে। ওই ব্যক্তিই প্রথম দেখান যে, উইকিতে ‘ভারত-ভুটান সম্পর্ক’ সংক্রান্ত পেজটিতে আকসাই চিনকে চিনের অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে। ছত্রশল সিং নামের ওই ব্যক্তি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে উইকিপিডিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেন। তারপরই কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে উইকিপিডিয়ার কাছে কৈফিয়ত চাওয়া হয়। জানিয়ে দেওয়া হয়, ওই তথ্য ভুল। আকসাই চিন ভারতেরই অংশ। এবং অবিলম্বে তা ঠিক করতে হবে। সূত্রের খবর, উইকি কর্তৃপক্ষ যদি ওই ভুল সংশোধন না করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকী, ভারতে উইকি বন্ধ করে দেওয়ার পথেও হাঁটতে পারে কেন্দ্র।

[আরও পড়ুন: জেলে সিবিআই-এনআইএ-ইডির জেরা করার ঘরে বসবে সিসিটিভি, বড় সিদ্ধান্ত সুপ্রিম কোর্টের]

আসলে আকসাই চিন ইস্যুতে শুরু থেকেই ভারত সরকারের অবস্থান স্পষ্ট। ওই ভূখণ্ড ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলেই মনে করে নয়াদিল্লি। গতবছর সংসদে দাঁড়িয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) ঘোষণা করেছিলেন, “পাক অধিকৃত কাশ্মীর ও আকসাই চিন জম্মু-কাশ্মীরের অভিন্ন অংশ৷ দেহে প্রাণ থাকতে কাশ্মীরকে ভাগ হতে দেব না৷ রক্ষা করব৷ যখন আমি কাশ্মীরের কথা বলি, তখন সংবিধানে উল্লেখিত ভারতের সীমানাকে মাথায় রেখেই বলি৷ পাক অধিকৃত কাশ্মীর (PoK) ও আকসাই চিনকে আমি ভারতের অংশ হিসাবেই দেখি৷” এদিন উইকিপিডিয়াকে হুঁশিয়ারি দিয়ে আরও একবার নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিল নয়াদিল্লি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement