৩ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে বন্দুকবাজের হামলার স্মৃতি এখনও ফ্যাকাসে হয়নি। ফেসবুকে লাইভ করে যে হামলা গোটা বিশ্বকে জানান দিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ব্রেন্ডন ট্যারান্ট। সেই ঘটনার পরই জনপ্রিয় এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছিল। কীভাবে এমন লাইভ পোস্ট করতে দেওয়া হল, তা নিয়ে সমালোচনাও কম হয়নি। সেই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েই এবার কড়া পদক্ষেপ করতে চলেছে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা। ফেসবুকের চিফ অপারেটিং অফিসার সেরিল স্যান্ডবার্গ শুক্রবার জানিয়ে দেন, এবার থেকে সকল ইউজারকে ফেসবুক লাইভের অনুমতি দেওয়া হবে না। লাইভ করার ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু বিধি-নিষেধ জারি করা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: ফাঁস Oppo Reno-র নয়া মডেলের লুক, ফ্রন্ট ক্যামেরা দেখলে তাক লাগবে]

গত ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে জোড়া মসজিদে হামলা চালিয়েছিল ওই বন্দুকবাজ। মুসলিমদের হত্যা করাই ছিল তার লক্ষ্য। যে ভয়ংকর হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন কমপক্ষে ৫০ জন। ১৭ মিনিটের হত্যালীলার সেই লাইভ ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফেসবুক ইতিমধ্যেই এমন ৯০০টি ভিডিও উদ্ধার করেছে, যেখানে ওই হত্যাকাণ্ডের দৃশ্য টুকরো টুকরো করে ছড়িয়ে পড়েছে। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের এমন বেশ কিছু প্রোফাইল ও গ্রুপকে ব্লক করে দিয়েছে ফেসবুক। যে সমস্ত গ্রুপ বিশ্বে হিংসা ছড়ানোর চেষ্টা করছে সে সব গ্রুপ মুছে ফেলছে ফেসবুক। গত সপ্তাহেই এই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের তরফে জানানো হয়েছিল, ক্রাইস্টচার্চ হামলার পরের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যে সমস্ত ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছিল তার মধ্যে প্রায় ১৫ লক্ষ ভিডিও মুছে ফেলে ফেসবুক।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরকে ‘স্বাধীন রাষ্ট্র’ হিসেবে উল্লেখ, ক্ষমা চাইল ফেসবুক]

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যাতে আর এমন হিংসার দৃশ্য ছড়াতে না পারে, সেই কারণে লাইভে কিছু নিয়মাবলি আরোপ করতে চলেছে ফেসবুক। ফেসবুকে কেউ সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়াতে চাইলে, তা আর সম্ভব হবে না। তবে এ কাজ যে একেবারেই সহজ নয়, তা বলাই বাহুল্য। কারণ বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মের ইউজার সংখ্যা ২৭০ কোটিরও বেশি। এবার দেখার একাজে ফেসবুক কতটা সফল হয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং