BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারত-পাক সম্পর্কে ফাটল রুখতে বিশেষ উদ্যোগ ফেসবুকের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 22, 2019 8:48 pm|    Updated: May 27, 2019 1:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত ও পাকিস্তান। খেলার মাঠ হোক কিংবা রাজনৈতিক মহল, সবক্ষেত্রেই সরগরম থাকে দু’পক্ষ। ইস্যু যাই হোক না কেন, দুই দেশের মধ্যে টানাপোড়েন লেগেই থাকে। কেউ কাউকে ছেড়ে কথা বলে না। আর সোশ্যাল মিডিয়ার বাড়বাড়ন্তে এখন সেই লড়াই ভারচুয়াল দুনিয়াতেও চরমে ওঠে। সে উদাহরণ সম্প্রতিকালে অনেক মিলেছে। কিন্তু অনেক সময়ই নেটদুনিয়ায় কিছু আলোচনা এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে তা নিয়ে তৈরি হয় তীব্র বিতর্ক। পালা চলে অভিযোগ-পালটা অভিযোগের। কিন্তু এমন পরিস্থিতি যাতে সৃষ্টি না হয়, তার জন্য কড়া পদক্ষেপ করেছে ফেসবুক।

[আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্কিত মিম শেয়ার? সতর্ক করতে কড়া পদক্ষেপ ফেসবুকের]

একটা খবর কোনওভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুল পরিবেশিত হলেই সমস্যা। তাতে যে দুদেশের সম্পর্ক আরও তিক্ত হয়, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু হুটহাট করে কোনও ইউজারকে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারে বাধা দেওয়াও সম্ভব নয়। তাই বিশেষ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ফেসবুক। কী সেই পদক্ষেপ? প্রথমেই একটি দল গঠন করে তারা ভুয়ো খবর ও ভুল তথ্য চিহ্নিত করার কাজ করছে। আর এমন কোনও সংবাদ ছড়িয়ে পড়লেই যে পেজ থেকে খবরটি ছড়াচ্ছে, তা নামিয়ে নিচ্ছে এই সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট। এর পাশাপাশি যে সমস্ত অ্যাকাউন্ট থেকে সমাজে হিংসা ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়, সেদিকে প্রতিনিয়ত নজর রাখছে ফেসবুক। শুধু তাই নয়, সমাজে ভুল তথ্য ভাইরাল করতে ফেসবুকে অনেক ভুয়ো অ্যাকাউন্ট ও পেজও তৈরি করা হয়। নজরদারি চালিয়ে ফেসবুক যদি বোঝে এমন পেজ বা অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়াই শ্রেয়, তবে তেমনটাই করে থাকে তারা।

দিনের পর দিন ভুয়ো খবর রোখার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ফেসবুক। যার ফলে এর হার অনেকটাই কমানো সম্ভব হয়েছে। তবে বিষয়টি পুরোপরি নির্মূল করতে আরও উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করতে চলেছে ফেসবুক। একাজে আরও কর্মীও নিয়োগ করা হচ্ছে। নিয়মকানুনও আরও কড়া করা হচ্ছে। দুদেশের সম্পর্ক এতে কতটা জোড়া লাগবে তা জানা নেই, তবে নিজেদের স্বচ্ছতা ও বিশ্বাসযোগ্যতা বজায় রাখার সমস্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে জনপ্রিয় সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক।

[আরও পড়ুন: ভুয়ো খবর পোস্ট করার আগে দু’বার ভাবুন, আপনার উপর নজর ফেসবুকের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement