BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ 

Advertisement

সংকটের মধ্যে টেলিকম মন্ত্রীর দ্বারস্থ এয়ারটেল কর্তা, ভোডাফোন নিয়ে জট অব্যাহত

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 20, 2020 5:57 pm|    Updated: February 20, 2020 8:59 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের পর এবার টেলিকম মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদের (Ravi Shankar Prasad) সঙ্গে বৈঠক করলেন ভারতী এন্টারপ্রাইজ গ্রুপের চেয়ারম্যান সুনীল ভারতী মিত্তল (Sunil Bharti Mittal)। ভোডাফোন (Vodafone) নিয়ে চিন্তার মধ্যেই কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রীকে এয়ারটেলের তরফে আশ্বস্ত করা হল, কেন্দ্রের সব বকেয়া তাঁরা নির্ধারিত সময়েই মিটিয়ে দেবে। রবিশংকর প্রসাদের সঙ্গে বৈঠকে সেকথাই জানিয়ে এসেছেন সুনীল ভারতী মিত্তল।

উল্লেখ্য, নির্দিষ্ট সময়ে কেন্দ্রের বকেয়া না মেটানোয় সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের তীব্র ভর্ৎসনার মুখে পড়েছে টেলি সংস্থাগুলি। তার পরেই অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে ভোডাফোনের ভবিষ্যৎ নিয়ে। যা পরিস্থিতি তাতে কেন্দ্র মোটা অঙ্কের আর্থিক প্যাকেজ না দিলে ঘুরে দাঁড়ানো অসম্ভব হবে ভোডাফোনের পক্ষে। চিন্তা ছিল এয়ারটেলকে নিয়েও। কিন্তু, বৃহস্পতিবার এয়ারটেল গ্রুপের চেয়ারম্যান সুনীল ভারতী মিত্তল সেই চিন্তা দূর করে দিয়েছেন। টেলিকম মন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বৈঠক ফলপ্রসূ হয়েছে। এবং তিনি জানিয়েও দিয়েছেন, এয়ারটেল সুপ্রিম কোর্ট নির্ধারিত সময়সীমা অর্থাৎ ১৭ মার্চের মধ্যে বকেয়া মেটানোর মতো পরিস্থিতিতে আছে। তাছাড়া গতকাল থেকেই বাজারে এয়ারটেলের শেয়ারের দর উর্ধ্বমুখী।

Airtel-Vodafone

[আরও পড়ুন: ঘোর অনিশ্চয়তায় ভোডাফোনের ভবিষ্যৎ, কাজ হারানোর আশঙ্কা ১৩ হাজার কর্মীর]

টেলিকম সংস্থার সমস্যা মেটানোর লক্ষ্যে বুধবারই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী দেনার দায়ে জর্জরিত দুই সংস্থার কর্তাদের সঙ্গে দেখা করেন। এয়ারটেলের কর্তা সুনীল মিত্তল এবং ভোডাফোন আইডিয়ার কুমার মঙ্গলম বিড়লার সঙ্গে নির্মলার সেই বৈঠকে কী ফলাফল হয়েছে তা স্পষ্ট নয়। কিন্তু, সেই বৈঠকের পর কেন্দ্র জানিয়েছে দুই টেলিকম সংস্থা ইতিমধ্যেই ১৭ হাজার কোটি টাকার ঋণ মিটিয়েছে। আগামী সপ্তাহে আরও টাকা মেটানোর আশ্বাসও দিয়েছে তাঁরা। কেন্দ্র আশার কথা শোনালেও ভোডাফোন নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। টেলি শিল্প এখন চাইছে, আবাসনের মতো তাঁদেরও দীর্ঘমেয়াদে কম সুদে ঋণের জন্য বিশেষ তহবিল গড়া হোক। টেলিকম মন্ত্রক এই প্রস্তাব নিয়ে চিন্তাভাবনা করছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement