২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‌টিকটক নিয়ে বড় ধাক্কা ট্রাম্পের, অ্যাপ ডাউনলোডে তাঁর নিষেধাজ্ঞায় স্থগিতাদেশ আদালতের

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 28, 2020 10:00 am|    Updated: September 28, 2020 12:05 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ রবিবার রাত ১২টা বাজলেই জারি হয়ে যেত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের (Donald Trump) নির্দেশিকা। মার্কিন মুলুকে আর ডাউনলোড করা সম্ভব হত না চিনা অ্যাপ টিকটক। ১২ নভেম্বর থেকে পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা চাপানোর আগে এভাবেই ধাপে ধাপে এগোচ্ছিল হোয়াইট হাউস। কিন্তু এদিন আদালতে টিকটক নিষেধাজ্ঞা নিয়ে জোর ধাক্কা খেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর জারি করা নির্দেশে আপাতত স্থগিতাদেশ দিল মার্কিন আদালত। ফলে এখনই মার্কিন মুলুকে টিকটক (TikTok) ডাউনলোড বন্ধ হচ্ছে না।

জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে হোয়াইট হাউসের (White House) পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, রবিবারের পর থেকে মার্কিন মুলুকে নিষিদ্ধ হবে টিকটক ডাউনলোড। এরপরই আদালতে ট্রাম্প প্রশাসনের এই নির্দেশিকার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানায় টিকটক। সেই মামলার শুনানিতে বিচারক কার্ল নিকোলাস ট্রাম্পের ওই নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ জারি করে। ১২ নভেম্বর থেকে পুরোপুরি যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, তার উপরও স্থগিতাদেশ চেয়েছিল চিনা (China) অ্যাপটির পেরেন্ট সংস্থা বাইটডান্স (ByteDance)। কিন্তু তা মঞ্জুর হয়নি মার্কিন আদালতে।

[আরও পড়ুন:‌ ফেসবুকে #‌CoupleChallenge-এ অংশ নিয়েছেন?‌ সাবধান! মারাত্মক বিপদে পড়তে পারেন]

এদিন আদালতে দু’পক্ষের আইনজীবীর বক্তব্যই প্রথমে শোনেন বিচারক। টিকটকের পক্ষে সওয়াল করে আইনজীবী জন হল জানান, এভাবে অ্যাপ ডাউনলোডের উপর স্থগিতাদেশ জারি করা উচিত নয়। কারণ মার্কিন (America) মুলুকে এই অ্যাপ কয়েক কোটি লোক ব্যবহার করেন। অ্যাপটি আপডেট না করালে, তাঁদের ফোন থেকে তথ্য চুরি হওয়ার আশঙ্কা থাকছে। এছাড়া ইতিমধ্যে এক মার্কিন সংস্থার কাছে আমেরিকায় টিকটকের দায়িত্বভার বিক্রি করার বিষয়টি নিয়েও আলোচনা চলছে। তাই আপাতত এই নির্দেশে স্থগিতাদেশের আর্জি জানান জন হল। শেষপর্যন্ত তাঁর দাবি মেনে নেন বিচারকও।

[আরও পড়ুন:‌ চিনের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি ঘটলেই কি দেশে ফিরবে PUBG? মিলল বড়সড় আপডেট]

করোনা আবহেই সামনে আসে টিকটকের তথ্য নিরাপত্তা নিয়ে বিষয়টি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দাদের ব্যক্তিগত তথ্য এই অ্যাপের মাধ্যমে চিনের হাতে চলে যাচ্ছে বলে জানায় মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের। এমনকী এই অ্যাপটিকে হাতিয়ার করে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনেও চিন হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ তোলেন মার্কিন গোয়েন্দারা। এই পরিস্থিতিতে গত মাসেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছিলেন আমেরিকায় এই অ্যাপটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করবেন তিনি। আবার সেদিনই শোনা যায়, ভারতীয় ব্যবসায়ী সত্য নাদেল্লার সংস্থা মাইক্রোসফট (Microsoft Corporation) নাকি টিকটক কিনে নিতে চাইছে।

এমনকী আমেরিকার সরকারও নাকি চাইছিল, বাইটডান্সের হাত থেকে এই সংস্থার মালিকানা বিশ্বখ্যাত সংস্থা মাইক্রোসফটের হাতে যাক। এরপর দু’‌পক্ষের মধ্যে প্রাথমিক স্তরে আলোচনাও হয়। এর মধ্যেই আবার টিকটক কিংবা তার মালিক চিনা কোম্পানির সঙ্গে কোনওরকম আর্থিক লেনদেনের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। এর ফলে পরিস্থিতি আরও সঙ্গীন হয়ে ওঠে। তারপরই জানা যায়, মাইক্রোসফট নয়, নিজেদের এই অ্যাপটি বিক্রির জন্য আরেক মার্কিন সংস্থা ওরাকল কর্পোরেশনকে বেছে নিয়েছে চিনা সংস্থা বাইটডান্স (ByteDance)। যদিও পুরোটাই এখনও আলোচনার পর্যায়ে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement