BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নিঝুম গঙ্গার পাড়ে সময় কাটাতে চাইলে ঘুরে আসুন ‘সিটি অফ লাইট’-এ

Published by: Sayani Sen |    Posted: August 12, 2018 7:57 pm|    Updated: August 12, 2018 7:57 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাতে মাত্র সাত-আটদিন সময় রয়েছে৷ ভাবছেন কোথাও বেড়াতে যাবেন? তবে বেড়িয়ে পড়ুন বারাণসীর উদ্দেশ্যে৷ বছরের প্রায় সবসময়ই পর্যটকদের ভিড়ে গমগম করে আলোর শহর বারাণসী৷ গঙ্গার পাড়ে দাঁড়িয়ে প্রাচীন পুরুষদের স্মৃতি রোমন্থনের পাশাপাশি নিজের হারানো শান্তিও খুঁজে পাবেন আপনি।

সনাতন ধর্মমতে ভারতের সাতটি পবিত্র শহরের একটি হচ্ছে বারাণসী। লখনউ থেকে ৩২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই শহর। অনেকে বলেন বারাণসী সরু গলির শহর। তবে এখানে গেলে দালানকোঠার রং আপনার চোখে লেগে থাকতে বাধ্য।

[চোখের সামনে বাঘ দেখতে চান? পাড়ি জমাতে পারেন এই সব অরণ্যে]

[নদীর পাড়ে বসে ইলিশ চেখে দেখতে চান? তবে পৌঁছে যান এই ঠিকানায়]

এবার চলুন ঘুরে দেখি বারাণসীস। দর্শন শুরু হোক গঙ্গার ঘাটগুলি থেকে। এখানে প্রায় ৮৪টি ঘাট রয়েছে। সূর্যোদয় উপভোগ করতে হলে আপনাকে খানিকটা আলসেমি ভাঙতে হবে। সকালেই বেড়িয়ে পড়ুন নৌবিহারে। গঙ্গার তীরের মন্দিরের স্থাপত্যশৈলীও অবাক করবে আপনাকে। প্রাচীন শিল্পীদের নৈপুণ্য আর দক্ষতার ইতিহাস আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য। গঙ্গার সবচেয়ে প্রাচীন ঘাটটির নাম দশাশ্বমেধ। ব্রহ্মা শিবকে স্বাগত জানানোর জন্য নাকি তৈরি করেছিলেন এ ঘাট। তাই বিশ্বনাথ মন্দিরের কাছে অবস্থিত এ ঘাট দর্শন না করে ফিরলে হয়তো একটু আপসোস থেকে যাবে। বারাণসীতে প্রায় ২৩ হাজার মন্দির রয়েছে। সঙ্গে শিশুরা থাকলে হনুমান মন্দির থেকেও ঘুরে আসতে পারেন। বিশ্বনাথ মন্দির কিংবা গোল্ডেন টেম্পলে গেলে কোনও ব্যাগ, মোবাইল কিংবা পেন নিয়ে ঢুকতে দেওয়া হয় না৷ এখানে কালী ভৈরব মন্দির, নেপালি হিন্দু মন্দির দেখতে দেখতে ঘুরে আসতে পারেন আলমগীর মসজিদে। এছাড়া মান মন্দির, দুর্গা মন্দির, রামনগর কেল্লা দেখতে দেখতে একটু সময় বাঁচিয়ে রাখতে পারেন হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় দেখার জন্য। সারাদিন যতই ঘোরাঘুরি করুন না কেন, সন্ধেবেলা  গঙ্গা আরতি মিস করবেন না যেন৷ অন্ধকার গঙ্গার ঘাটে প্রদীপের আলোয় স্নিগ্ধতা আপনার মন শান্ত করে দিতে বাধ্য৷

[এক যুগ পর মুন্নারের আন্নামালাই পাহাড় রূপ নিল বেগুনি উপত্যকার, কিন্তু কেন?] 

[শান্ত সমুদ্রের হাতছানিতে সাড়া দিয়ে পাড়ি জমান জারোয়াদের দেশে]

বেনারস ঘুরতে যাবেন আর রাস্তার পাশের খাবারদাবার টেস্ট করবেন না এটা হতেই পারে৷ অবশ্যই চেখে দেখুন কচুরি আর তরকারি৷ ঘুরতে ঘুরতে তৃষ্ণা মেটাতে চুমুক দিন লস্যিতেও৷ এত কিছু খেয়ে পেট ভরলেও, বেনারসি পান খেতে ভুলবেন না৷ 

[সবুজে হারাতে চান? আপনার জন্য রইল পাঁচ জায়গার খোঁজ]

নানা ধরনের সিল্কের শাড়ির জন্য বিখ্যাত বারাণসী৷ তাই একবার ঢুঁ মেরে আসতেই পারেন তাঁতি পাড়ায়৷ নিজের বা কাউকে উপহার দেওয়ার জন্য সস্তায় কিনে নিতেই পারেন কয়েকটি শাড়িও৷  

[পাইন আর ধুপি গাছের জংলি পথে হারাতে পা বাড়ান লামাদের ঘর লামাহাট্টায়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement