BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

দীর্ঘ বিরতির পর সুরক্ষাবিধি মেনে পর্যটকদের জন্য দরজা খুলছে কালিম্পংয়ের মর্গ্যান হাউস

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 2, 2020 8:52 pm|    Updated: July 2, 2020 10:39 pm

An Images

সংগ্রাম সিংহরায়, শিলিগুড়ি: দীর্ঘ কয়েক মাসের বিরতির পর অবশেষে খুলছে কালিম্পংয়ের মর্গ্যান হাউজ। আনলকের দ্বিতীয় পর্বে অনেকেই হয়তো ভাবছেন, যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই কোথাও গিয়ে একটু ঢুঁ মেরে আসবেন। গৃহবন্দি জীবন থেকে মুক্তির আস্বাদ নিতে বেরিয়ে পড়বেন! তাঁদের জন্য কিন্তু দরজা খুলে দিয়েছে মর্গ্যান হাউস (Morgan House)। ব্রিটিশ স্থাপত্যের আভিজাত্য এবং গা ছমছমে ভুতুড়ে আবহকে সঙ্গী করে পর্যটক টানতে প্রস্তুত কালিম্পংয়ের (Kalimpong) মর্গ্যান হাউস।

কালিম্পং শহর থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরে মর্গান হাউস। ভবনটি তৈরি হয় ১৯৩০ সালে। মালিক ছিলেন সেই সময়কার নীলকর সাহেব তথা পাটের ব্যবসায়ী জর্জ মর্গ্যান। সেই সময়ে সাহেবদের বিয়ে এবং উৎসব অনুষ্ঠান করার জন্য জনবিরল এলাকায় এই বাংলোটি তৈরি করা হয়েছিল। চারদিক ঘেরা পাহাড়ে। রেলি, কাফের, লাভা এবং ডেলো উপত্যকা এখানকার সৌন্দর্যকে আরও নিবিড় করেছে। লোকমুখে প্রচলিত এই বাড়িতে নাকি এখনও ব্রিটিশ সাহেবের আত্মা ঘোরাফেরা করে।

অনেক পর্যটক রাতে অদ্ভুতুড়ে আওয়াজ শুনে মুর্ছা গিয়েছেন এমন লোকও পাওয়া গিয়েছে। তবে সেসব মিথ বলেই মনে করছেন মর্গ্যান হাউসের কর্মী শুভঙ্কর দেবনাথ। কয়েক মাস ধরে সেখানে থাকলেও তিনি এমন কোনও অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হননি বলেই জানিয়েছেন। তবে সেসব বাদ দিলেও মর্গ্যান হাউস এবং তার চারপাশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যও কম নয়! প্রকৃতি দেবতা যেন রূপ-সৌন্দর্য ঢেলে দিয়েছেন এই এলাকার ওপর। এখান থেকে কাঞ্চনজংঘা অনেকটাই পরিষ্কারভাবে দৃশ্যমান। সেই সঙ্গে বেঙ্গল ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট বোর্ড এখানে আরও সাতটি কটেজ তৈরি করেছে। যেগুলির প্রত্যেকটিই সৌন্দর্যের আকর। তবে মূল আকর্ষণ ব্রিটিশ আমলের এই বাংলো মর্গান হাউস।

[আরও পড়ুন: আগামিকাল থেকেই পর্যটকদের জন্য খুলছে গোয়ার দরজা, ঘুরতে গেলে জেনে নিন এই তথ্যগুলি]

১ জুলাই থেকে অনলাইন বুকিং শুরু হয়ে গিয়েছে। মর্গান হাউসের ম্যানেজার চুংকু লামা বলেন, সরকারি সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে মর্গান হাউস খুলে দেওয়া হয়েছে। যে কোনও পর্যটক বিনা দ্বিধায় এখানে আসতে পারেন। পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব জানিয়েছেন রাজ্যের আরও ৪টি বন্ধ থাকা পর্যটন কেন্দ্রের সঙ্গে মর্গান হাউসও খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জর্জ মর্গ্যান এবং তার স্ত্রীর মৃত্যুর পর এই কুঠির কোনও উত্তরাধিকার না থাকায় তৎকালীন ভারত সরকারের হাতে এটি চলে যায়। পরবর্তীতে ১৯৭৫ সালে ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্যুরিজম ডেভলপমেন্ট বোর্ডের হাতে হস্তান্তর করা হয় ভবনটির মালিকানা। কুঠিতে বিদেশের পর্যটকদের পাশাপাশি কিশোরকুমার থেকে শুরু করে উৎপল দত্তের মতো বাঘা বাঘা তারকারাও আসতেন অবসর কাটাতে। সব মিলিয়ে কয়েক মাসের বিরতির পর পর্যটকদের আহ্বান জানাতে প্রস্তুত মর্গ্যান হাউস।

[আরও পড়ুন: ভ্রমণপিপাসুদের জন্য সুখবর, জুলাইয়ের গোড়াতেই দার্জিলিংয়ে খুলছে হোটেল, হোম স্টে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement