BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‌করোনার কোপে ১০০ বছরে প্রথমবার পিছিয়ে গেল জমকালো রিও কার্নিভাল

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 25, 2020 7:49 pm|    Updated: September 25, 2020 7:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ গত ১০০ বছরে যা হয়নি, দু’‌টো প্রাণঘাতী বিশ্বযুদ্ধ যা করতে পারেনি, এবার সেটাই করে দেখাতে মারণ ভাইরাস করোনা (Covid-19)। গত ১০০ বছরে এই প্রথমবার পিছিয়ে দেওয়া হল ব্রাজিলের (Brazil) বিখ্যাত রিও–র কার্নিভাল (Rio Carnival)। করোনার অতিমারীর কারণে ভিড় এড়াতে এই কার্নিভাল আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনওভাবেই এত বড় কার্নিভাল নিরাপদে করা সম্ভব নয়, এমনটাই জানিয়েছে আয়োজক রিও-র লিগ অফ সাম্বা স্কুল LIESA।

[আরও পড়ুন: ‌ট্রাম্প, নেতানিয়াহুর পর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন]

ব্রাজিলের রাজধানী রিও ডি জেনেইরো–র (Rio De Janeiro) এই কার্নিভাল পৃথিবী বিখ্যাত। গোটা বিশ্ব থেকে বহু মানুষ ভিড় করেন এই সৈকতশহরে। মূলত প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসে এই কার্নিভালের আয়োজন করা হয়। কিন্তু বর্তমানে এখনও ভ্যাকসিন বাজারে আসেনি। প্রতিদিন সেদেশে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। মোট আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে তৃতীয়স্থানে ব্রাজিল। আর তাই কোনওরকম ঝুঁকি নিতেই রাজি নয় প্রশাসন থেকে শুরু করে আয়োজকরা। তবে কার্নিভাল পিছিয়ে দেওয়া হলেও কার্নিভাল স্ট্রিট পার্টিগুলি আয়োজিত হবে কিনা, সেই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। আসলে গোটা শহর জুড়ে কার্নিভালের সময় এই সব স্ট্রিট পার্টির আয়োজন হয়। ধারনা করা হচ্ছে, করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় সেগুলোর আয়োজনও বন্ধ রাখা হতে পারে।

ফাইল ছবি

[আরও পড়ুন: ব্যবহৃত কন্ডোম ধুয়ে ফের বাজারে বিক্রি, আজব জালিয়াতিতে হতবাক পুলিশ]

প্রসঙ্গত, ১৭২৩ সাল থেকে শুরু হয়েছিল ব্রাজিলের বিখ্যাত এই কার্নিভাল। সেদেশের সংস্কৃতিকে মূলত তুলে ধরা হয় এই কার্নিভালের মাধ্যমে। তবে বহু মানুষের রুটি–রুজিও জড়িয়ে রয়েছে এই কার্নিভালের সঙ্গে। তাই অনেকেই এবার আর্থিক অনটনের মুখে পড়বেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এদিকে, ব্রাজিলে প্রথম করোনা আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছিল গত ২৬ ফেব্র‌ুয়ারি। অর্থাৎ কার্নিভাল শেষের পরদিন। তারপর থেকেই সে দেশে দ্র‌ুত ছড়িয়ে পড়েছে সংক্রমণ। এখনও পর্যন্ত ব্রাজিলের করোনায় মৃতের তালিকায় ব্রাজিলের স্থান বিশ্বে দ্বিতীয়। সে দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৩৯,০০০ জনের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement