Advertisement
Advertisement
Sunderban

নদীর ধারে ঘুরছে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার! এই দৃশ্য দেখতে শীতের মরশুমেই ঘুরে আসুন সুন্দরবন

সুযোগ হাতছাড়া করবেন না যেন।

Get ready for a tour at Sunderban if you don't want to miss to see Royal Bengal Tiger| Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:December 13, 2020 10:38 pm
  • Updated:December 13, 2020 10:39 pm

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: ‘রয়্যাল বেঙ্গল রহস্য’ বরাবরই বেশ জমজমাট। দক্ষিণরায়ের ভয়ংকর সুন্দর রূপের টানেই সুন্দরবনে (Sunderban) ছুটে যান ভ্রমণপিপাসু মানুষজন। করোনা কালে হাজারও নিয়ম মেনে সেই ছুটে যাওয়া বুঝি সার্থক হল। সপ্তাহান্তে নিজের ডেরা ছেড়ে বেরিয়ে পর্যটকদের দেখা দিলেন ‘বাঘমামা’। দু’দিন সুন্দরবনের জঙ্গলে দেখা গেল রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারকে। শনিবার ও রবিবার ছুটির দিন এই বাঘ দর্শন পেয়ে খুশি জঙ্গলে ঘুরতে আসা ভ্রমণ পিপাসু মানুষজন।

রবিবার সুধন্যখালির জঙ্গলে দক্ষিণরায়কে দেখা গেল দুপুর নাগাদ। সবুজ জঙ্গলের ফাঁকে হলদে-কালো ডোরাকাটার আভাস! সুন্দরবনের জঙ্গলে ভ্রমণ করতে আসা একদল পর্যটক যখন সজনেখালি জঙ্গল থেকে বেরিয়ে সুধন্যখালি জঙ্গলের দিকে যাচ্ছিলেন, তখনই বাঘের দর্শন পান। একটি পূর্ণবয়স্ক রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারকে (Royal Bengal Tiger) দেখা যায়, নিজস্ব গতিতে জঙ্গলের পাশে নদীর পাড় ধরে হাঁটতে। নদীর পাশে লাগানো নেট ফিনিশিংয়ের ধার ধরে প্রায় কয়েক কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে চলে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারটি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: শীতের মরশুমে হাতের মুঠোয় ‘রাঙামাটির দেশ’, সৌজন্যে IRCTC]

প্রথমে এই বিরল দৃশ্য চোখে পড়ে একদল পর্যটকের। বাঘ  দর্শনের খবর পেয়ে অন্যান্য পর্যটকরাও সুধন্যখালি জঙ্গলের কাছে চলে আসেন বাঘ দেখতে। বেশ কিছু বোট এবং লঞ্চ ভিড় করে দক্ষিণরায় দর্শনের জন্য। জঙ্গলের মধ্যে নদীর পাড় ধরে কয়েক কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে যাওয়া ডোরাকাটাকে দেখা যথেষ্ট সৌভাগ্যের বলে মনে করছেন পর্যটন ব্যবসায়ী কৃষ্ণকুমার মণ্ডল। তিনি বলেন, ”বহুদিন ধরে সুন্দরবনের জঙ্গলে পর্যটকদের নিয়ে ভ্রমণ করে আসছি। কিন্তু তাঁদের এত কাছ থেকে এবং এতক্ষণ ধরে কখনো বাঘ দেখাতে পারিনি।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: দীর্ঘ ছ’মাস পর ফের চেনা ছবি, থাইল্যান্ডের লাস্যময়ী সৈকতে ভিড় বাড়ছে পর্যটকদের]

পূর্ণবয়স্ক রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারকে ক্যামেরাবন্দি করতে তখন পর্যটকদের হুড়োহুড়ি। প্রচুর ছবি তোলেন পর্যটকদের একাংশ। কেউ কেউ আবার চাক্ষুষ দেখেই ক্ষান্ত থাকেন। তাঁদের বক্তব্য, চোখ থেকে সরে গেলেও এই ছবিই রয়ে যাবে মনে। 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ