৭ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ২৫ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোন ইন্টারনেট ব্রাউজার সব চেয়ে ভাল, তা নিয়ে ইউজারদের মধ্যে মতভেদ রয়েছেই! কেউ ভোট দিতে চান ক্রোম-এর পক্ষে, কেউ বা বেছে নেন ফায়ারফক্স। কেউ বা অন্য কিছু!
সেটা একান্তই ব্যক্তিনির্ভর মতামত!
কিন্তু, সম্প্রতি ইন্টারনেট ব্রাউজার মাইক্রোসফট এজ যে সমীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করল, তা নিঃসন্দেহে চোখ কপালে তুলবে। সেই সমীক্ষা এবং তার ফলাফল বলছে, গুগল ক্রোম যতটা ল্যাপটপের ব্যাটারি খরচ করায়, ততটা অন্য কোনও ব্রাউজারে হয় না।
স্পষ্ট হিসেব ইউজারদের জন্য পেশ করেছে মাইক্রোসফট এজ। একই এইচডি ভিডিও সমান সময়সীমায় বার বার চালিয়ে দেখা গিয়েছে, কোন ইন্টারনেট ব্রাউজারে কতটা ব্যাটারি খরচ হয়!
চোখ রাখা যাক সেই তালিকায়! দেখে নেওয়া যাক, কোন ইন্টারনেট ব্রাউজার কতক্ষণের মধ্যে ল্যাপটপের ব্যাটারির চার্জ শেষ করে দিয়েছে!
গুগল ক্রোম: ৪ ঘণ্টা ১৯ মিনিট ৫০ সেকেন্ড
মোজিলা ফায়ারফক্স: ৫ ঘণ্টা ৯ মিনিট ৩০ সেকেন্ড
অপেরা মিনি: ৬ ঘণ্টা ১৮ মিনিট ৩৩ সেকেন্ড
আর মাইক্রোসফট এজ? তার সময়সীমা কতটা?
পাক্কা ৭ ঘণ্টা ২২ মিনিট ৭ সেকেন্ড!
বোঝাই যাচ্ছে, যদি ল্যাপটপের ব্যাটারি চার্জের হিসেব ধরতে হয়, তবে মাইক্রোসফট এজ-এর ধারে-কাছে কেউ আসছে না। সংস্থাটি জানিয়েছে, যাতে ল্যাপটপের ব্যাটারি কম খরচ হয়, সেই দিকে বিশেষ ভাবে নজর দিয়ে এই ইন্টারনেট ব্রাউজার গড়ে তোলা হয়েছে।
সমীক্ষার ফলাফল আরও জানিয়েছে, মাইক্রোসফট এজ ব্রাউজার গুগল ক্রোম-এর চেয়ে ৭০ শতাংশ বেশি ব্যাটারি সাশ্রয়কারী। তবে এই ভিডিও চালানোর হিসেব বাদ দিলেও অন্য কাজের নিরিখেও প্রতিদ্বন্দ্বীদের তুলনায় মাইক্রোসফট এজ এগিয়ে থাকছে ৩৬-৫৩ শতাংশ বেশি! সে আপনি অন্য সাইটে যাওয়া, অনেকগুলো ট্যাব খোলা, ই-মেল পড়া, কোনও আর্টিকল স্ক্রল করা বা ছোট ভিডিও দেখা- যা-ই করুন না কেন!
তবে, মাইক্রোসফট এজ যা-ই বলুক না কেন, বাজার কিন্তু বলছে অন্য কথা। বিশ্বের সব চেয়ে জনপ্রিয় ইন্টারনেট ব্রাউজার এখনও পর্যন্ত গুগল ক্রোম-ই! বাজারে তার শেয়ারও রয়েছে ৪৫ শতাংশ। অন্য দিকে, মাইক্রোসফট ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার আপাতত মন্দার মুখ দেখছে। গত মাসে এক ধাক্কায় তাদের শেয়ার ৪১.৩৭ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়িয়েছে ৩৮.৬ শতাংশে। সেই জন্যই এমন সব সমীক্ষা পেশ করে এবং মাইক্রোসফট এজ নিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে চাইছে সংস্থা।
আপনার যদি আগ্রহ থাকে, তবে নিচে দেখে নিতে পারেন সেই সমীক্ষাটির ভিডিও!

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং