২৭ আশ্বিন  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ওয়ালমার্টের মতো বিখ্যাত শপিং সেন্টার৷ কিন্তু সেখানেও যে নিশ্চিন্তে কেনাকাটা করবেন, তার উপায় নেই৷ আমেরিকার টেক্সাসে ওয়ালমার্টের গুদামে শপিং ব্যাগ নিতে গিয়েছিলেন এক কর্মী৷ আর সেখানেই একটা দৃশ্য দেখে তীব্র আতঙ্কে ছিটকে আসেন তিনি৷ কিছুক্ষণের জন্য কার্যত বোবা হয়ে যান৷ কী সেই দৃশ্য?

[আরও পড়ুন: ননদের সঙ্গেই বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন পাত্রী! জানেন কোথায় ঘটে এমন?]

কেনাকাটার জন্য ঝুড়ি নিতে যেতেই তাঁর চোখে পড়ে, দুটি ঝুড়ির মাঝখানে আড়াআড়ি কুণ্ডলী পাকিয়ে রয়েছে ইয়াবড়, মোটাসোটা একটি সাপ৷ হলদেটে গায়ের উপর কালো ছোপ ছোপ৷ অন্তত ৩ থেকে সাড়ে তিন প্যাঁচে রয়েছে সাপটি৷ নির্বিকার, নিরুত্তাপ৷ অবস্থান টলে যেতে এতটুকুও বিরক্ত হয়নি৷ তবু এত বড় একটা সাপ দেখে স্নায়ু ঠিক রাখা কি সম্ভব? মোটেই না৷ ওয়ালমার্টের কর্মীকেও তাই গ্রাস করেছিল প্রবল আতঙ্ক৷

কিছুক্ষণ পর অবশ্য তাঁর মুখে বর্ণনা শুনে গুদামে ছুটে যান নিরাপত্তা রক্ষী, পুলিশ বাহিনী৷ তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, দেখতে এত ভয়ংকর হলে কী হবে? ব়্যাটল স্নেক প্রজাতির সরীসৃপটি একেবারেই নিরীহ, নির্বিষ৷ টেক্সাসের নর্থইস্ট পুলিশ বিভাগ জন হেকম্যান নামে এক সাপুড়ের সাহায্য নিয়ে সাপটিকে উদ্ধার করে৷ নিজেরাই ফেসবুকে সাপটির ছবি দিয়ে পোস্ট করেছে৷ তার তারপরই লাইক, শেয়ারের বন্যা৷ কেউ কেউ মন্তব্য করছেন, এবার থেকে ওয়ালমার্টে গেলে নিজেদের ব্যাগই নিয়ে যাব৷ কে জানে আবার শপিং মলের ব্যাগ নিতে গেলে যদি সাপ বেরিয়ে পড়ে! কেই বা লিখছেন, এমন দৃশ্য দেখলে তো আতঙ্কে হার্ট অ্যাটাক হয়ে যেত৷

[আরও পড়ুন: শিকারে চোখ ঈগলের, লেন্সবন্দি শিকারির দুর্লভ ছবি প্রশংসা কুড়োচ্ছে নেটদুনিয়ায়]

কিন্তু কী কারণে এত্ত বড় সাপ চলে এল একেবারে শহরের মাঝে শপিং সেন্টারে? পরিবেশবিদদের মতে, সম্ভবত টেক্সাস এলাকায় প্রবল বৃষ্টির কারণে নিজেদের বাসস্থান হারিয়ে লোকালয়ে ঢুকে পড়েছে এই ব়্যাটল স্নেকটি৷ তবে জনপ্রিয় মার্কিন রিটেলার সংস্থা ওয়ালমার্টের নিরাপত্তা নিয়ে আগেও অভিযোগ উঠেছিল৷ ২০১৭ সালেও এক ক্রেতা ফ্রিজের ভিতর থেকে ইয়োগার্ট বের করার সময়ে বেরিয়ে আসে ১২ ফুট লম্বা একটি পাইথন৷ তারপর থেকেই ওয়ালমার্টের জনপ্রিয়তা কিছুটা ক্ষুণ্ণ হয়েছে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং