BREAKING NEWS

২  ভাদ্র  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

টিকটকে বেশি লাইক আদায়ের জন্য মাকে প্রায় মেরেই ফেলছিল ‘গুণধর’ ছেলে!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 6, 2019 4:12 pm|    Updated: November 6, 2019 4:12 pm

Boy almost kllled his mother to get more likes on TikTok

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় বলে ভালবাসা আর যুদ্ধে সবই বৈধ। তবে এবার এই তালিকায় যুক্ত করে দিতে হবে নেটদুনিয়ায় লাইক পাওয়ার বিষয়টিকেও। সৌজন্যে যুবপ্রজন্ম। কারণ তারা লাইক পাওয়ার জন্য যে কোনও সীমা ছাড়াতে প্রস্তুত। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিই তার আদর্শ উদাহরণ।

বর্তমান প্রজন্মের মাথায় প্রতিনিয়ত নানা চিন্তাভাবনা ঘুরতে থাকে। কী এমন করলে সকলের নজরে পড়া সম্ভব। স্বল্প সময়ে, কম পরিশ্রমে কীভাবে জনপ্রিয়তার শিখর ছোঁয়া যাবে। এসব ফন্দিই আঁটে তারা। আর তাদের এই চিন্তা শক্তিতে এখন ধোঁয়া দিচ্ছে টিকটক। এই অ্যাপটির মাধ্যমে নানা ধরনের ভিডিও বানিয়ে বন্ধুমহলে খ্যাতি কুড়িয়ে নিতে চায় অনেকেই। কখনও অভিনয় করে তো কখনও ছবির গানে ঠোঁট মিলিয়ে টিকটক ভিডিও তৈরি করতে ভালবাসে তারা। চলন্ত ট্রেনের সামনে টিকটক ভিডিও রেকর্ড করতে গিয়ে যুবকের প্রাণ হারানোর খবরও শিরোনামে উঠে এসেছিল। এবার এক ‘গুণধর’ ছেলের কীর্তিতে দুশ্চিন্তায় মারা যাওয়ার জোগাড় হয়েছিল মায়ের।

[আরও পড়ুন: বন্ধুর সঙ্গে বাজি ধরে বিপত্তি, ৪১টি ডিম খেয়ে মৃত্যু ব্যক্তির]

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাড়ির মেঝেতে পড়ে রয়েছে এক তরুণ। তার পাশে অনেকখানি লাল রঙের তরল পড়ে। একঝলকে দেখে মনে হবে তরুণের শরীর থেকেই কতখানি রক্ত বেরিয়েছে। সেই অবস্থায় কাতর গলায় মাকে ডাকে সে। মা এসে এমন দৃশ্য দেখে ঘাবড়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির অন্যান্য মহিলাদেরও চিৎকার করে ডাকেন। তাঁরাও ছুটে আসেন। কিন্তু কাছে আসতেই ভুল ভাঙে। বুঝতে পারেন, লাল তরল আসলে রক্ত নয়। ছেলের বেয়াদপি ধরতে পেরেই তাকে মারতে শুরু করেন মা। মায়ের মার থেকে বাঁচতে মেঝে থেকে উঠে পালিয়ে যায় তরুণ। এদিকে মহিলা তখনও হাঁপাচ্ছেন। কিছুক্ষণ আগেই যে ভয় আর ছেলেকে হারানোর আশঙ্কা তাঁকে গ্রাস করেছিল, সেই ছাপ তাঁর চোখমুখে স্পষ্ট। মায়ের ধমক খেয়ে এরপর নিজেই সেই লাল রঙ পরিষ্কার করে ছেলে।

ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই ওই তরুণকে তুলোধোনা করেছেন নেটিজেনরা। অনেকের দাবি, এই ছেলেকে আরও কয়েকটা চড়-থাপ্পড় দেওয়া উচিত ছিল। তরুণের এমন কাণ্ডজ্ঞানহীনতায় ক্ষুব্ধ প্রত্যেকেই।

[আরও পড়ুন: সুন্দরবনে খাদ্যাভাসে আজব বদল, ফল-মূল ছেড়ে বিরিয়ানি খাচ্ছে বাঁদররা!]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে