৭ ভাদ্র  ১৪২৬  রবিবার ২৫ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইচ্ছেপূরণের জন্য মানুষ কী না করে। নানা প্রতিকূলতা কাটিয়ে কতদূরই না পৌঁছে যায়। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের এক প্রৌঢ় কোন মনোস্কামনা পূরণের জন্য একশো কিলোমিটার পথ অতিক্রান্ত করলেন, তা জানলে চোখ কপালে উঠবে!

বয়স ৬৫ বছর। নাম স্টিফেন গ্রাহাম গার্ডনার। বাড়ি নর্থ ওটোগোয়। জানেন, এই বয়সে প্রৌঢ়ের শখ কী? মহিলাদের অন্তর্বাস সংগ্রহ করা। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। আর সেই শখ পূরণের জন্য মোট একশো কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করেছেন স্টিফেন। গত ৬ এপ্রিল মাহেনো থেকে ডুনেডিনে যান তিনি। উদ্দেশ্য মহিলাদের আট জোড়া অন্তর্বাস চুরি করা! তাঁর এমন অদ্ভুত ইচ্ছের কথা শুনে হতভম্ব নেটিজেনরাও।

[আরও পড়ুন: চন্দ্রাভিযান নিয়ে অভিনন্দন বার্তায় পাকিস্তানকে তীব্র কটাক্ষ হরভজনের]

কিন্তু অদ্ভুত এই শখ মেটাতে গিয়ে চুরির দায়ে ধরাও পড়ে যান তিনি। ডুনেডিন জেলা আদালতে তাঁকে তোলা হলে তিনি বলেন, কোনও অপরাধমূলক উদ্দেশ্য নিয়ে তিনি যে শহরে যাননি। তাঁর আইনজীবী জানান, মোয়ানা পুলে শুধুমাত্র স্পা করতেই সেখানে পৌঁছেছিলেন তাঁর মক্কেল। তবে পুলে স্নানের সময় হঠাৎই তাঁর অন্তর্বাস চুরি করার কথা মনে হয়েছিল। কিন্তু আইনজীবীর কোনও যুক্তিই ধোপে টেকেনি। তাঁর সব আবেদন খারিজ করে দেন বিচারপতি। তাঁর কথায়, মহিলাদের অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়েই তাঁদের অন্তর্বাস চুরি করেছেন ওই প্রৌঢ়।

একটি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, চুপিসারে বাড়ির জানলা দিয়ে একটি ঘরে ঢোকেন স্টিফেন। ঘরের ভিতরের সমস্ত জিনিস লন্ডভন্ড করে দেন তিনি। এরপর আট জোড়া অন্তর্বাস চুরি করে সেখান থেকে পালানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু ঠিক সেই সময়ই তাঁকে দেখে ফেলেন দুই মহিলা। প্রৌঢ়কে আটকানোর চেষ্টা করলে একজনকে ধাক্কা মেরে চম্পট দেন স্টিফেন। সেই সময় কয়েকটি অন্তর্বাস তাঁর হাত থেকে পড়ে যায়। পরে সুযোগ বুঝে সেগুলি নিতে গেলে তাঁকে ধরে ফেলে পুলিশ। আদালত তাঁকে ১১ মাসের জন্য ঘর বন্দির নির্দেশ দিয়েছে। সেই সঙ্গে ক্ষতিপূরণ হিসেবে অন্তর্বাসের মালকিনকে এক হাজার ডলারও দিতে বলেন বিচারপতি।

[আরও পড়ুন: নিজের ছাপানো ইউরো দিয়ে অডি কেনার চেষ্টা! পুলিশের জালে জার্মানির তরুণী]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং