BREAKING NEWS

২৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৬ জুন ২০২০ 

Advertisement

সবই আছে কনেই নেই! ধুমধাম করে ছেলের বিয়ে দিল পরিবার!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 13, 2019 6:44 pm|    Updated: May 13, 2019 8:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তুতো ভাইয়ের বিয়ে দেখার পর থেকেই আশায় বুক বাঁধতে শুরু করেছিলেন যুবক। স্বপ্ন দেখেছিলেন একদিন তাঁরও ধুমধাম করে বিয়ে হবে তাঁরও। রাজকীয় বেশে বরের সাজে ঘোড়ায় চেপে বিবাহ আসরে হাজির হবেন তিনি। অবশেষে যুবকের মনস্কামনা পূরণ হল। এলাহি বিয়ের আয়োজনও হল। কিন্তু একটি জিনিসই ছিল না তাঁর বিয়েতে। কনে। হ্যাঁ, কনে ছাড়াই বিয়ের সমস্ত আচার পালন করলেন বিয়ে পাগল যুবক। যাঁর কাণ্ডকারখানা এখন সোশ্যাল মিডিয়ার চর্চার বিষয়।

[আরও পড়ুন: ‘স্বাধীন ভারতের প্রথম সন্ত্রাসবাদী হিন্দু’, বিস্ফোরক মন্তব্য কমল হাসানের]

ঘটনা গুজরাটের হিম্মতনগরের। ২৭ বছরের অজয় বারোত তাঁর বাড়ির লোকেদের নিজের ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন। বলেছিলেন, জমকালো বিয়ের অনুষ্ঠান হোক তাঁরও। বাড়ির ছেলের সেই ইচ্ছাকে অগ্রাহ্য করা হয়নি। বরং তাঁকে জানিয়ে দেওয়া হয়, একদিন তাঁর ধুমধাম করে বিয়ে দেওয়া হবে। অবশেষে সেই দিন উপস্থিত অজয়ের জীবনে। তাঁর জন্য কনে পাওয়া না গেলেও বিয়ের আচার-অনুষ্ঠানে এতটুকু ফাঁকি দেওয়া হয়নি। শেরওয়ানি গায়ে চাপিয়ে ঘোড়ার পিঠে উঠে আসরে হাজির হন তিনি। মেহেন্দি থেকে সংগীত, সমস্ত অনুষ্ঠানই হয় ঘটা করে। এছাড়াও গুজরাটি পরিবারের বিবাহের সব নিয়মই পালন করা হয়। এখানেই শেষ নয়, অজয়ের বিয়েতে ২০০ জনকে নিমন্ত্রণ করে খাওয়ানোও হয়। কিন্তু কেন এমন এলাহি আয়োজন?

অজয়ের বাবা বলেন, “আমার ছেলের বোধ স্বাভাবিক নয়। ওর চিকিৎসা চলছে। খুব ছোটবেলায় মাকে হারিয়েছে। অল্প বয়স থেকেই বিয়ের অনুষ্ঠানে যেতে ভালবাসত। কোনও নিমন্ত্রণ মিস করত না। আর নিজের বিয়ে কবে হবে জিজ্ঞেস করত। ঠিক করেছিলাম, ভালভাবে বিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করব ওর। যাতে ওর মনে হয় স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।” মানসিকভাবে অসুস্থ ছেলের সঙ্গে কোনও বাবাই তাঁর মেয়ের বিয়ে দিতে চাইবেন না। তাই বলে কি অজয়ের ইচ্ছেপূরণ হবে না? তেমন তো হয় না। সেই জন্যই এমন উদ্যোগ।

[আরও পড়ুন: শিশু ধর্ষণে অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে ফুঁসছে উপত্যকা, বিক্ষোভে তপ্ত শ্রীনগর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement