BREAKING NEWS

১৭ ফাল্গুন  ১৪২৭  বুধবার ৩ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বিক্রি হতে চলেছে গা ছমছমে এই ভূতুড়ে বাড়ি, দাম জানেন?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: October 28, 2018 6:47 pm|    Updated: October 28, 2018 6:47 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরিত্যক্ত পাগলাগারদ। যা সাক্ষী থেকেছে অনেক মৃত্যুর। যেখানে ঘটেছে বহু অলৌকিক ঘটনা। ভূত নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে যেখানে আক্রান্ত হয়েছেন একাধিক গবেষক। যে পাগলাগারদের অবিশ্বাস্য সব কাহিনি শুনে এখনও শিউরে উঠতে হয়। গা ছমছমে সেই ভূতুড়ে বাড়িটি এবার বিক্রি হতে চলেছে। শোনা যাচ্ছে, ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ১৬ কোটি টাকা মূল্য ধার্য হয়েছে বাড়িটির।

[সেরার শিরোপা জয়ের খুশিতে মঞ্চেই বেহুঁশ মিস প্যারাগুয়ে, ভাইরাল ভিডিও]

ভুতূড়ে বাড়িতে একটা রাত কাটানোর ইচ্ছা অনেকেই প্রকাশ করেন। যাঁরা অলৌকিক বিষয় নিয়ে চর্চা করতে ভালবাসেন বিশেষ করে তাঁরা তো এমন প্রস্তাব পেলে লুফে নেবেন। তেমনই কেউ আগ্রহী হলে কিনে নিতে পারেন নর্থ ওয়েলসে অবস্থিত এই হন্টেড হাউসটি। স্থানীয়দের মতে, এক নয়, একাধিক অলৌকিক ঘটনা ঘটে গিয়েছে এই বাড়িতে। পুরনো বাড়িটি নতুন করে মেরামতির পর সেখানে একটি হাসপাতাল কিংবা আশ্রম তৈরি হোক। এমনটাই চান বিক্রেতারা। তবে এখনও পর্যন্ত কিছুই ঠিক হয়নি।

বাড়িটির সঙ্গে ঠিক কীরকম কাহিনি জড়িত? স্থানীয় সূত্রে খবর ১৯২৮ সালে বাজি রেখে বাড়িটি হাতছাড়া করেছিল ব্যাগট পরিবার। তারপর ১৯৩৭ সালে এটি একটি মানসিক সংশোধনাগারে পরিবর্তিত হয়। যেখানে ৮৭ জন মানসিক ভারসাম্যহীন রোগী থাকতেন। তাঁদের সবরকম চিকিৎসার ব্যবস্থাও করা হয়েছিল সেখানে। কিন্তু নানা কারণে ১৯৮৯ সালে বন্ধ হয়ে যায় পুল পার্ক। দীর্ঘদিন রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে আরও খারাপ অবস্থা হয় বাড়িটির। আর সেখানেই নাকি ঘুরে বেড়াতে দেখা যায় অতৃপ্ত আত্মাদের। বছর দুয়েক আগে পর্যন্তও সেখানে অশরীরীর অস্তিত্ব অনুভব করেছেন অনেকেই। বাড়ির ভিতরের বিভিন্ন ছবি দেখলেও গায়ে কাঁটা দেয় স্থানীয়দের।

যাঁরা অলৌকিক বিষয় নিয়ে গবেষণা করছেন, তাঁরা জানিয়েছেন, এই বাড়িতে অশুভ শক্তির বাস রয়েছে। হিংসাপ্রবণ এবং ক্ষতিকর সেসব আত্মাদের উপস্থিতি সেখানে পা রাখলেই অনুভূত হয়। তাই বাড়িটি সম্পূর্ণ নিজের ঝুঁকিতেই কিনতে হবে। যিনি কিনবেন, তিনি কতটা লাভবান হবেন, তা নিয়েও ধন্দে গবেষকরা। সেই সঙ্গে তাঁদের পরামর্শ, যদি একান্তই বাড়িটি কেউ কেনেন, তাহলে অবশ্যই তা যেন ভেঙে নতুন করে তৈরি করা হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement