৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গভীর রাতে রাস্তায় বেরিয়েছেন৷ বাড়ি ফেরার জন্য কিছুই পাচ্ছেন না৷ অনলাইন ক্যাব বুক করতে গিয়ে টাকার অঙ্ক দেখেই আপনার চক্ষু চড়কগাছ৷ কিন্তু জানেন কি ওলা কিংবা উবের নয়, জোম্যাটোর মাধ্যমেও অনায়াসেই বাড়ি পৌঁছনো সম্ভব৷ ভাবছেন তো কীভাবে? হায়দরাবাদের বাসিন্দা ওবেশ কোমিরিসেট্টি দেখালেন সেই পথ৷ মন জয় করলেন নেটিজেনদের৷

[আরও পড়ুন: জানতেন, এদেশেই রয়েছে গান্ধীজির মন্দির? প্রসাদেও রয়েছে চমক]

সপ্তাহখানেক আগের ঘটনা৷ হায়দরাবাদের বাসিন্দা ওবেশ কোমিরিসেট্টি কেনাকাটি করতে একটি শপিং মলে গিয়েছিলেন৷ শপিং করতে গিয়ে কি আর সময়ের কথা মাথায় থাকে? ওবেশও তার ব্যতিক্রম নন৷ তিনিও ভুলে গিয়েছিলেন ঘড়ির দিকে তাকাতে৷ শপিং মল থেকে বেরিয়ে বুঝতে পারেন রাত হয়েছে বিস্তর৷ একটিও বাস পাচ্ছিলেন না৷ রাতের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে অ্যাপ ক্যাবের ভাড়াও৷ এদিকে পেটে তখন ছুঁচোয় ডন দিচ্ছে৷ বিপদে পড়ে মাথায় দুষ্টু বুদ্ধি খেলে যায় ওবেশের৷ তিনি জোম্যাটোতে ফোন করে শপিং মলে আশেপাশের একটি রেস্তরাঁ থেকে খাবার অর্ডার দেন। তারপরেই ডেলিভারি বয়কে ফোন লাগান ওবেশ৷ তাঁকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার অনুরোধ করেন ওই যুবক। অনুরোধ রাখেন ওই ডেলিভারি বয়। জোম্যাটোর ডেলিভারি বয়ও তাঁর অনুরোধ শোনেন৷ খাবার সমেতই ওবেশকে বাড়ি পৌঁছে দেন তিনি।

জোম্যাটোর ডেলিভারি বয়ের সঙ্গে এভাবে বাড়ি ফিরে বেশ খুশি ওবেশ৷ এই ঘটনা ফেসবুকে শেয়ার করেন ওই যুবক৷ তিনি বলেন, “রাত ১১টা ৫০ নাগাদ আমি ইনরবিট মল থেকে বেরোই। কিন্তু তখন কোনও বাস পাচ্ছিলাম না। অটোও পাইনি৷ উবেরের ভাড়াও খুব বেশি৷ আমি আমার বাড়ির ঠিকানায় জোম্যাটো থেকে খাবার অর্ডার দিই। ডেলিভারি বয়কে ফোন করে বলি আমাকে একটু বাড়ি পৌঁছে দিতে। ডেলিভারি বয় রাজিও হয়ে যায়। বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার জন্য তাঁকে ধন্যবাদ৷’’

[আরও পড়ুন: রাখি পূর্ণিমাতেই জেগে ওঠে নদীচর, একদিনের জন্য নতুন জায়গায় উৎসবে মাতেন মানুষ]

ওবেশের ফেসবুক পোস্ট নজর কেড়েছে নেটিজেনদের৷ লাইক, শেয়ারের ঝড় উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ ওই যুবকের কীর্তি মন ছুঁয়েছে খাদ্য সরবরাহকারী সংস্থা জোম্যাটোরও৷ ওবেশের উপস্থিত বুদ্ধির প্রশংসা করেছে তারা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং