২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

নিজস্ব সংবাদদাতা, বনগাঁ: মুরগি কিংবা হাঁস নয়, সাপের ডিম দিয়ে তৈরি হল অমলেট! ডিম ভাঙার পর অবাক হয়ে গেলেন গৃহবধূ৷ সাপের ডিমের অমলেটের কথা মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়৷ নিজের চোখে সাপের ডিম দেখতে ভিড় জমান এলাকার আট থেকে আশি প্রায় সকলেই৷ সাপের ডিম কিনেছেন ভেবে ভয়ে কাঁটা ওই গৃহবধূ৷

[আরও পড়ুন: মুখে অক্টোপাস নিয়ে ছবি তোলার চেষ্টা, কামড় খেয়ে হাসপাতালে মার্কিন মহিলা]

বৃহস্পতিবার পাড়ার মুদিখানা দোকান থেকে বেশ কয়েকটি ডিম কেনেন উত্তর ২৪ পরগনার গোপালনগরের সাতবেড়িয়ার বাসিন্দা রাবেদা বিবি৷ শুক্রবার ডিম ভেঙে দেখেন তার মধ্যে কালো, লম্বা একটি বস্তু রয়েছে৷ ডিমের ভিতর এটি কীভাবে এল, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা করতে থাকেন গৃহবধূ৷ তবে তাতে আমল না দিয়েই ডিমটি ভেজে ফেলেন তিনি৷ পরে প্রতিবেশী এবং পরিজনদের একথা জানান রাবেদা৷ ডিমের ভিতরে থাকা ওই বস্তুটিকে দেখান তিনি৷ সকলেই প্রায় নিশ্চিত হয়ে বলতে শুরু করেন, এটি নির্ঘাত সাপের ডিম৷

[আরও পড়ুন: মালিকের সঙ্গে কুকুরকে স্নান করাচ্ছে দুটি শিম্পাঞ্জি, হাসির রোল নেটদুনিয়ায়]

একথা লোকমুখে রটতে বেশি সময় লাগেনি৷ আট থেকে আশি প্রায় সকলেই রাবেদার বাড়িতে সাপের ডিম দেখতে ভিড় জমান৷ উৎসুকদের নজর শুধু ভাঙা ডিমের মধ্যে থাকা ওই কালো, লম্বা বস্তু৷ স্থানীয় বাসিন্দা কবিরুল মণ্ডল জানান, ‘‘ডিমটিকে দেখতে দৌড়ে যাই৷ প্রথমে বিশ্বাস করতে পারিনি৷ তবে দেখার পর বিশ্বাস হয় রাবেদা যা বলছেন তা সত্যি৷ রাবেদার বাড়ির লোকেদের ওই ডিম খেতে বারণ করি৷’’

[আরও পড়ুন: প্রসব যন্ত্রণায় কাতর মহিলাকে নিয়ে প্ল্যাটফর্ম দিয়েই ছুটল অটো, ভাইরাল ভিডিও]

ডিমের মধ্যে থাকা কালো, লম্বা বস্তু দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন রাবেদার পরিজনেরা৷ তাই বাধ্য হয়ে খাবার ফেলে দেন ওই গৃহবধূ৷ তবে সাপের ডিমের ভাঙা অংশ এবং অমলেটটি রেখে দেন রাবেদা৷ কীভাবে তাঁর দোকান থেকে কেনা ডিমের ভিতর কালো, লম্বা বস্তু এল তা বুঝতে পারছেন না দোকান মালিকও৷

কিন্তু কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা? এটিকে সাপের ডিম বলে এখনই মানতে নারাজ তাঁরা৷ তাঁদের দাবি, সাপের ডিমের আকার এত বড় হয় না৷ যুক্তি, মুরগির হরমোনঘটিত সমস্যার কারণেই ডিমের ভিতর ওই রকম একটি আকার তৈরি হচ্ছিল৷ ডিমটি পরীক্ষা না করা পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে কিছুই বলা সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং